পরীক্ষায় ভাল নম্বর দেয়ার অজুহাতে ছাত্রীকে কু-প্রস্তাব

0
125

শাহিনুর ইসলাম প্রান্ত, লালমনিরহাটঃ  পরীক্ষায় ভাল নম্বর পাইয়ে দেয়ার অজুহাতে ছাত্রীকে কু-প্রস্তাব দিয়েছে লালমনিরহাটের কালীগঞ্জ অরণ্য স্কুল এন্ড কলেজ ডে নাইট কেয়ারের পরিচালক। প্রতিবাদে বিক্ষোভ ও থানায় মামলা দায়ের।

বৃহস্পতিবার(৭ ফেব্রুয়ারি) দিনগত রাতে লালমনিরহাটের কালীগঞ্জ থানায় মামলাটি দায়ের করেন ওই ছাত্রীর বাবা। এর আগে, বৃহস্পতিবার(৭ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যায় উপজেলার অরন্য স্কুল এন্ড কলেজ ডে নাইট কেয়ার গেটে বিক্ষোভ করেন বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী ও শিক্ষার্থীরা।

থানায় দায়ের করা এজাহার সুত্র জানা গেছে, উপজেলার গোড়ল ইউনিয়নের চাকলারহাটের অরণ্য স্কুল এন্ড কলেজ ডে নাইট কেয়ারে আবাসিক অনাবাসিক শিক্ষা ব্যবস্থা রয়েছে। ওই প্রতিষ্ঠানের নবম শ্রেনীর বিজ্ঞান বিভাগের আবাসিকের এক ছাত্রীকে গত ৫ ফেব্রুয়ারি নিজ কক্ষে ডেকে নেন প্রতিষ্ঠানটির প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক আঞ্জুরুল হক সরকার মিন্টু(৪৮)। এ সময় পরীক্ষায় ভাল নম্বর পেতে ছাত্রীকে কু প্রস্তাব দেন পরিচালক মিন্টু। শুধু তাই নয়, শ্রীলতাহানীর চেষ্টা করলে তাকে ধাক্কা দিয়ে পালিয়ে বেঁচে যায় ওই ছাত্রী।

ওই দিনই সহপাঠিরা মেয়েটির বাবাকে ফোন করে ডেকে নিয়ে বিষয়টি অবগত করেন। ওই ছাত্রীর বাবা বিষয়টির বিচার দাবি করে শিক্ষকদের কাছে মৌখিক অভিযোগ দায়ের করেন। কিন্তু কোন বিচার পাননি। বিষয়টি ব্যাপক জানাজানি হলে বৃহস্পতিবার(৭ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যায় শিক্ষার্থী ও এলাকাবাসী বিচার দাবিতে বিদ্যালয় গেটে বিক্ষোভ মিছিল করে। খবর পেয়ে কালীগঞ্জ থানা পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রন করেন।

পরে এ ঘটনায় পরিচালকের বিচার দাবি করে ওই ছাত্রীর বাবা বাদি হয়ে বৃহস্পতিবার রাতে কালীগঞ্জ থানায় একটি এজাহার দায়ের করেন। বাদি বলেন, চরিত্রহীন পরিচালক মিন্টু ইতিপুর্বেও কয়েকবার ছাত্রীদের সাথে যৌনহয়রানী করে টাকার জোরে বেঁচে গেছে।

এ ঘটনার পর থেকে পলাতক থাকায় পরিচালক আঞ্জুরুল হক সরকার মিন্টুকে প্রতিষ্ঠানে পাওয়া যায়নি। ব্যবহৃত মোবাইলটিও বন্ধ রয়েছে।

কালীগঞ্জ থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) মকবুল হোসেন জানান, যৌনহয়রানীর শিকার ছাত্রীর পরিবারের দায়ের করা এজাহারটি তদন্ত করে নিয়মিত মামলা হিসেবে নথিভুক্ত করা হয়েছে। আসামী মিন্টুকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।