প্রথম শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে কিশোর গ্রেফতার

0
34

 

 

শরীয়তপুরের নড়িয়ার ভোজেশ্বর ইউনিয়নের একটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রথম শ্রেণির এক ছাত্রীকে ধর্ষণের শিকার হয়েছে। শুক্রবার সন্ধ্যায় শিশুর প্রতিবেশী সাইমুন তালুকদার (১৫) তাদের বসত ঘরে আটকে শিশুটিকে ধর্ষণ করে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

আটক কিশোর স্থানীয় ভোজেশ্বর উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির শিক্ষার্থী। রবিবার নড়িয়া থানার পুলিশ ওই কিশোরকে গ্রেফতার করেছে। অন্যদিকে, শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে অসুস্থ শিশুটির চিকিৎসা চলছে।

নড়িয়া থানা ও স্থানীয় সূত্র জানায়,নড়িয়ার ভোজেশ্বর ইউনিয়নের এক প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রথম শ্রেণির ছাত্রীর ছয় বছর বয়স। তার বাবা নেই, মা প্রবাসে থাকেন। বিদ্যালয়ের পাশে নানির বাড়িতে থেকে সে পড়ালেখা করে। গত শুক্রবার সন্ধ্যার দিকে খেলাধুলা করে বাড়ি ফেরার পথে সাইমুন শিশুটিকে তাদের বসত ঘরে নিয়ে যায়। সেখানে তাকে ধর্ষণ করে। শিশুটি বাড়ি ফিরে তার নানির কাছে সব ঘটনা খুলে বলে।

ব্যাথায় কাতরাতে দেখে ও রক্তক্ষরণ দেখে তাকে শরীয়তপুর সদর হাসাতালে ভর্তি করা হয়। শিশুটির নানি ওই কিশোরকে আসামি করে শনিবার নড়িয়া থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে ধর্ষণ মামলা করেন। পুলিশ রবিবার সকালে ভোজেশ্বর এলাকা থেকে ওই কিশোরকে আটক করেছে।

শরীয়তপুর সদর হাসপাতালের চিকিৎসক আম্বিয়া আলম কনা বলেন, মেয়েটিকে যখন হাসপাতালে আনা হয় তখন রক্তক্ষরণ হচ্ছিল। তাকে ধর্ষণের আলামত পাওয়া গেছে।

মেয়েটির নানি বলেন, আমরা গরিব মানুষ। সাইমুন আমাদের প্রতিবেশী। সে আমাদের মেয়ের সাথে এমন আচরণ করবে তা ভাবতে পারিনি। আমি তার কঠিন শাস্তি চাই।

নড়িয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনঞ্জুরুল হক আকন্দ বলেন, শিশু ধর্ষণের ঘটনায় মামলা হয়েছে। আসামীও গ্রেফতার করা হয়েছে। তাকে আদালতে সোপর্দ করা হবে।