কুমিল্লা থেকে অপহৃত শিশু ময়মনসিংহে উদ্ধার

0
59

 

 

কুমিল্লা নগরী থেকে অপহৃত মেহেদী হাসান মিরান নামের এক স্কুল ছাত্রকে ময়মনসিংহের গৌরিপুর রেলওয়ে স্টেশন থেকে উদ্ধার করা হয়েছে। এ সময় পুলিশ একই বাসার সাবলেট ভাড়াটিয়া নাহিদ ও নাহিদের অপর সহযোগী মাসুদকে আটক করেছে।

উদ্ধার হওয়া স্কুল ছাত্র মিরান কুমিল্লা নগরীর ইবনে তাইমিয়া স্কুলের কেজি শ্রেণির ছাত্র। সে জেলার চান্দিনা উপজেলার আটচাইল গ্রামের সৌদি প্রবাসী কেফায়েত খানের ছেলে এবং নগরীর টমছমব্রিজ এলাকার ফাতেমা মঞ্জিলের একটি ফ্ল্যাটের ভাড়াটিয়া।

কুমিল্লা কোতয়ালী মডেল থানার ওসি মোহাম্মদ আবু সালাম মিয়া জানান, গত শনিবার মিরানের মায়ের অনুরোধে তাদের বাসার সাবলেট ভাড়াটিয়া নাছিমার ছেলে নাহিদ কেজি শ্রেণির ছাত্র মিরানকে স্কুলে পৌঁছে দেয়ার জন্য বাসা থেকে বের হয়। দুপুরে স্কুলে গিয়ে মিরানকে না পেয়ে নাহিদের বাসায় খোঁজ নিয়ে তাকেও বাসায় পাওয়া যায়নি। পরে নিখোঁজ মিরানের মা নুসরাত জাহান এ বিষয়ে কোতয়ালী মডেল থানায় সাধারণ ডায়েরি করেন।

ওসি আরও জানান, অপহরণকারীরা ছিল ট্রেনে, তাই মোবাইল ট্র্যাকিং করে তাদের অবস্থান ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবায় পাওয়া গেলেও সেখানে পুলিশ গিয়ে ওদের না পেয়ে ফিরে আসে।

এদিকে রবিবার দুপুরে মোবাইল ট্র্যাকিং করে কোতয়ালী মডেল থানা পুলিশ অপহরণকারী চক্রের অবস্থান ময়মনসিংহের গৌরিপুর রেলওয়ে স্টেশনে নিশ্চিত হয়ে বিষয়টি ময়মনসিংহ ডিবি ও জিআরপি পুলিশকে অবহিত করার পর সেখানে অভিযান চালানো হয়। পরে সেখান থেকে অপহরণকারী নাহিদ ও মাসুদকে আটকসহ অপহৃত মিরানকে উদ্ধার করা হয়।

ময়মনসিংহ জেলা গোয়েন্দা শাখার (ডিবি) ওসি শাহ কামাল আকন্দ জানান, ময়মনসিংহের গৌরিপুর রেলওয়ে স্টেশন থেকে জিআরপি পুলিশের সহায়তায় অপহরণকারীদের আটক ও অপহৃত ওই স্কুল ছাত্র মিরানকে উদ্ধার করার পর তার সাথে থাকা স্কুল ব্যাগের খাতাপত্র ও ডায়েরি থেকে স্কুলের নম্বরে ফোন করে মিরানের পরিচয় নিশ্চিত হয়ে কুমিল্লার কোতয়ালী মডেল থানায় খবর দেয়া হয়।

এদিকে উদ্ধার হওয়া শিশু ও অপহরণকারীদের কুমিল্লায় আনতে কোতয়ালী মডেল থানা পুলিশের একটি টিম ময়মনসিংহ গিয়েছে বলে কোতয়ালী মডেল থানার ওসি জানিয়েছেন।