মাগুরায় বিনা অনুমতিতে সরকারি গাছ কেটে বিক্রি

0
568

মাগুরা প্রতিনিধিঃ   মাগুরা শহরের স্টেডিয়ামপাড়া এলাকায় নির্মানাধীন শেখ কামাল আইটি পার্ক এর জায়গার ২০টি গাছ অবৈধভাবে কেটে ফেলেছে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের লোকজন। গাছগুলি না কেটেও ওই নির্মাণ কাজ ভালভাবেই করা সম্ভব ছিল বলে জানিয়েছেন সদরের উইএনও।

এ ঘটনায় বুধবার দুপুরে মাগুরা পৌর ভূমি অফিসের নায়েব প্রভাষ চন্দ্র বারুরী বাদি হয়ে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের ৩জনকে আসামি করে একটি মামলা দায়ের করেন। কাটা গাছগুলি উদ্ধার করে বুধবার দুপুরে মাগুরা সদর উপজেলা পরিষদ চত্বরে আনা হয়েছে।

মাগুরা সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার আবু সুফিয়ান জানান- শেখ কামাল আইটি পার্ক নির্মাণের জন্য শহরের স্টেডিয়ামপাড়ায় সরকারের পক্ষ থেকে ৫ একর জায়গা বরাদ্দ দেয়া হয়। ওই জায়গায়  কাঠাল, আম, ভূতনিম, কদম, বড়ইসহ বিভিন্ন প্রজাতির প্রায় ৩০টি গাছ ছিল। কোন প্রকার সরকারি নির্দেশনা কিংবা অনুমতি ছাড়াই  নির্মাণ কাজে নিয়োজিত মেসার্স লিটন কন্সট্রাকশন নামে একটি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের লোকজন মঙ্গলবার রাতে অন্তত ২০টি গাছ  কেটে ফেলে।

এ গাছগুলি না কেটেও ঠিকাদার ভালভাবেই নির্মাণকাজ করতে পারতেন। বরং গাছ থাকলেই ওই প্রতিষ্ঠানটির চত্ত্বর আরও মনরম ও ছায়া সুনিবিড় থাকতো। অসৎ উদ্দেশ্য থেকেই তারা গাছগুলি নিয়ে গিয়ে পৌরসভার বাইরে ইছাখাদা এলাকায় একটি স মিলে বিক্রি করে। যার মূল্য প্রায় এক লাখ টাকা। বিনা অনুমতিতে সরকারি গাছ কাটা সম্পূর্ণ বে আইনি। এ ঘটনার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে আসাদুজ্জামান, তারেক হোসেন ও কাজী রানা নামে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের ৩ কর্মীর বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে।

মাগুরা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ইলিয়াছ হোসেন জানান- মামলার অভিযোগ পেয়েছি। গোপনে বিক্রি করা গাছগুলি উদ্ধার করা হয়েছে। পরবর্তীতে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এ ব্যাপারে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান লিটন কন্সট্রাকশন সুপারভাইজার কাজী রানা বলেন, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রনালয়ের মৌখিক অনুমতিতে আমরা গাছগুলি কেটেছি। তবে মাগুরা প্রশাসনের পক্ষ থেকে গাছ ফেরত চাইলে তাদেরকে গাছ ফেরত দেয়া হয়েছে।