দিনভর উত্তপ্ত ঢাবি ক্যাম্পাস

0
91

 

ডাকসুর পুনঃনির্বাচনের দাবিতে বিক্ষোভ, স্মারকলিপি, অনশনসহ বিভিন্ন কর্মসূচিতে উত্তপ্ত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস। নির্বাচনে অংশগ্রহণকারী বিভিন্ন প্যানেলের দাবির সাথে একমত পোষণ করে নব-নির্বাচিত ভিপি শিক্ষার্থীরা না চাইলে শপথ নিবেন না উল্লেখ করে আগামী ৩১ মার্চের মধ্যে পুনঃনির্বাচনের তাফসিল ঘোষণা করতে প্রশাসনের প্রতি আহ্বান জানান। এদিকে পুনঃনির্বাচনের দাবিতে মঙ্গলবার আমরণ অনশন শুরু করেন ৫ শিক্ষার্থী, বুধবার সারাদিন পচন্ড রোধের মধ্যেও তাদের অনশন অব্যাহত রাখতে দেখা গেছে। এদিন অনশনে আরও একজন শিক্ষার্থী যোগ দিলে অনশনকারীদের সংখ্যা দাঁড়ায় ৬ জনে। অন্যদিকে মঙ্গলবার মধ্য রাত থেকেই প্রভোস্ট এর পদত্যাগ ও পুনঃনির্বাচনের দাবিতে হলে বিক্ষোভ শুরু করে রোকেয়া হলের ছাত্রীরা। সারারাত বিক্ষোভ চলতে থাকে হলটিতে। রোকেয়া হলের শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের প্রতি সমর্থণ জানিয়ে বুধবার বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতি কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করে অন্যান্য ছাত্রী হলের নির্বাচিত প্রতিনিধিরা। নব-নির্বাচিত ভিপি নুরুল হক নুরও আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের নামে মামলা করাসহ বিভিন্ন অভিযোগ এনে রোকেয়া হলের প্রভোস্টয়ের নৈতিক স্থলন ঘটেছে দাবি করে তার পদত্যাগ চান। ৫ প্যানেলের প্রতিনিধিদের স্মারকলিপি ও পুনঃনির্বাচনের দাবি প্রসঙ্গে এদিন সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন ভিসি প্রফেসর ড. মো. আখতারুজ্জামান। পুনঃনির্বাচনের সুযোগ নেই ইঙ্গিত দিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ে কেউ অশান্তির পারিবেশ সৃষ্টি করতে চাইলে কঠোর ব্যবস্থার হুশিয়ারি দেন তিনি। সন্ধ্যায় ভিসির পক্ষ থেকে বার্তা পাঠিয়ে নির্বাচনে অংশগ্রহণকারীদের ধন্যবাদ ও বিজয়ীদের অভিনন্দন জানানো হয়।

বিজয়ীদের ভিসির শুভেচ্ছা

পুনঃনির্বাচনের দাবিতে আন্দোলন সংগ্রামের মধ্যেই প্রায় আড়াই যুগ পর অনুষ্ঠিত হওয়া ডাকসু ও হল সংসদ নির্বাচনে বিজয়ীদের শুভেচ্ছা জানান ভিসি প্রফেসর ড. মো. আখতারুজ্জামান। গতকাল বুধবার সন্ধ্যায় বিশ্ববিদ্যালয় জনসংযোগ দপ্তর থেকে গণমাধ্যমকর্মীদের কাছে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে ডাকসু নির্বাচনে অংশ নেয়া সকল প্রার্থীকে ধন্যবাদ জানানোর পাশাপাশি সুষ্ঠু ও সুশৃঙ্খলভাবে নির্বাচন পরিচালনায় সহযোগিতা করার জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, কর্মকর্তা, কর্মচারী, আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্য, গণমাধ্যমকর্মীসহ সংশ্লিষ্ট সকলের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন তিনি। একইসাথে গণতান্ত্রিক মূল্যবোধ ধারণ করে ভোটাধিকার প্রয়োগ করায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের বিশেষভাবে ধন্যবাদ জানানো হয়।