ঈদযাত্রায় ট্রেনসূচিতে গড়বড়, ভোগান্তিতে ঘরমুখো মানুষ

0
13

 

ঈদযাত্রার দ্বিতীয় দিনেও ট্রেনসূচিতে গড়বড় হওয়ায় ভোগান্তিতে পড়তে হয়েছে ঘরমুখো মানুষদের।

রোববার ঢাকার কমলাপুর রেল স্টেশন থেকে চিলাহাটিগামী নীলসাগর এক্সপ্রেস, রংপুর এক্সপ্রেস, চট্টগ্রামগামী মহানগর প্রভাতি এক্সপ্রেস ও খুলনাগামী সুন্দরবন এক্সপ্রেস ছেড়েছে দেরিতে।

তবে নীলসাগর এক্সপ্রেসের যাত্রীরাই সবচেয়ে বেশি ভোগান্তির শিকার হয়েছেন। ট্রেনটি সকাল ৮টায় ছেড়ে যাওয়ার কথা থাকলেও সাড়ে তিন ঘণ্টা দেরিতে ছেড়ে যায় বেলা সাড়ে ১১টার দিকে।
রংপুর এক্সপ্রেস সোয়া এক ঘণ্টা দেরি করে কমলাপুর ছেড়ে যায় সোয়া ১০টার দিকে।
কমলাপুর স্টেশন সূত্রে জানা গেছে, রংপুর এক্সপ্রেসের নিয়মিত যে ট্রেন সেটি নির্ধারিত সময়ের পরও কমলাপুর এসে না পৌঁছানোয় এ ট্রেনের যাত্রীদের জন্য বিশেষ ব্যবস্থায় আরেকটি ট্রেন যুক্ত করা হয়।
ফলে ট্রেনের আসন বিন্যাসেও আনা হয় পরিবর্তন। আর এতে চরম বিড়ম্বনা এবং দুর্ভোগের শিকার হয়।
কমলাপুরের স্টেশনের ব্যবস্থাপক মোহাম্মদ আমিনুল হক বলেন, সকাল থেকে সারাদিনে ৫২টি ট্রেন আমরা চালাব। এর মধ্যে আন্তঃনগর ও মেইল ট্রেন মিলে (সকাল সাড়ে ১০টা নাগাদ) ১৭টি ট্রেন ছেড়ে গেছে।

তিনি বলেন, রংপুর এক্সপ্রেস ট্রেনটা ছাড়তে গতকাল সাত ঘণ্টা লেট হয়েছিল। কিন্তু মন্ত্রী মহোদয়ের আশ্বাসে ভিত্তিতে আজকে আমরা বিকল্প রেক দিয়ে চালাচ্ছি। কিছুক্ষণ আগে (সোয়া ১০টয়) ছেড়ে গেল।
আসনবিন্যাসে অব্যবস্থাপনার বিষয়টিও স্বীকার করেন আমিনুল হক।
এবার রোজার ঈদ উপলক্ষে রেলওয়ে প্রথম যে দিনের আগাম টিকেট বিক্রি করেছিল, সেই ট্রেন ছাড়া শুরু হয়েছে শুক্রবার।
কিন্তু প্রথম দিনই বেশ কয়েকটি ট্রেন ছাড়তে দেরি হওয়ায় পরিবার পরিজন নিয়ে গরমের মধ্যে যাত্রীদের পড়তে হয়েছে অপেক্ষার বিড়ম্বনায়।