রোজা রেখে খেলেছেন ৩ জন

0
30

 

দুর্দান্ত জয় দিয়ে বিশ্বকাপ শুরু করেছে বাংলাদেশ। দক্ষিণ আফ্রিকাকে হারিয়েছে ২১ রানে। ম্যাচ শেষে সংবাদ সম্মেলনে দলের সবার নামই নিলেন অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা। তবে একটু আলাদা করে নিলেন মুশফিকুর রহিম, মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ ও মেহেদী হাসান মিরাজের নাম। এই তিনজন রোববার রোজা রেখে খেলেছেন।

মাশরাফি বললেন, ‘মুশফিক, রিয়াদ ও মিরাজকে নিয়ে আমি গর্বিত। তাঁরা রোজা রেখে খেলেছেন এবং নিজেদের সেরাটা দিয়েছেন।’

টসে হেরে প্রথমে ব্যাট করে বাংলাদেশ। তামিম ইকবাল ও সৌম্য সরকারের দারুণ শুরুতে বাংলাদেশের সূচনাটা ভালো হয়। তামিমের পর সৌম্যও ফিরে গেলে মাঠে নামেন মুশফিকুর রহিম। বুঝে-শুনে শুরু করেন তিনি। তবে খানিক বাদেই হাত খুলে মারতে থাকেন।

তৃতীয় উইকেটে সাকিবের সঙ্গে রেকর্ড জুটিতে বাংলাদেশের জয়ের মজবুত ভিত গড়ে দেন তিনি। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৭৮ রান করেন মুশফিক। ৮০ বলে খেলা ওই ইনিংসে ছিল আটটি চারের মার। এদিকে, দক্ষিণ আফ্রিকার ওপেনার কুইন্টন ডি কককে দারুণ এক রানআউটে প্যাভিলিয়নে ফেরত পাঠান তিনি।

সাকিব-মুশফিকের বিদায়ের পর হাল ধরেন মাহমুদুল্লাহ। তবে সাকিব-মুশফিকের বিদায়টা বুঝতে দেননি তিনি। রানরেট ঠিক রেখেছেন। বরং বলা যায়, শেষ দিকে ছোটখাটো ঝড় তুলেছেন তিনি। ৩৩ বলে ৪৬ রান করেন তিনি। যার মধ্যে ছিল তিনটি চার ও একটি ছক্কা।

এদিকে নিজের স্পিনে প্রোটিয়াদের ভালোই ভুগিয়েছেন মিরাজ। ১০ ওভারে দিয়েছেন ৪৪ রান। উইকেট পেয়েছেন একটি। কিন্তু ফাফ ডু প্লেসির ওই উইকেটটিই ছিল ম্যাচের টার্নিং পয়েন্ট। মাশরাফি নিজেই ওই উইকেটটির কথা আলাদা করে বলেছেন। হঠাৎ টার্ন করা বলটিতে বোল্ড হয়ে যান ফাফ। ৫৩ বলে ৬২ করে বাংলাদেশের বুকে কাঁপন ধরিয়ে দেন দক্ষিণ আফ্রিকার অধিনায়ক। তবে মিরাজ তাঁকে ফেরত পাঠান। এ ছাড়া ভয়ংকর হয়ে ওঠা ডেভিড মিলারের ক্যাচটিও লুফে নেন মিরাজ। মুস্তাফিজের বলে ক্যাচ দেওয়া মিলার ক্রমেই দক্ষিণ আফ্রিকাকে পথ দেখাচ্ছিলেন।