ঐক্যফ্রন্টের অচলায়তন ভাঙছে

0
19

 

দূরত্ব ঘুচিয়ে ও ‘ভুল বোঝাবুঝি’ নিরসন করে ফের রাজপথে সক্রিয় হচ্ছেন জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট। সেই উদ্যোগের অংশ হিসেবে বৈঠকে বসছেন ফ্রন্টের শীর্ষ নেতারা। আগামীকাল সোমবার জেএসসি সভাপতি আ স ম আবদুর রবের উত্তরার বাসায় মিলিত হবেন তারা। আড়মোড়া ভেঙে পুনর্নির্বাচন দাবিতে রাজপথ কাঁপানোর কর্মসূটি নেয়া হতে পারে নেতাদের এ বৈঠক থেকে।
এর আগে আজ রোববার সন্ধ্যায় ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতা ড. কামাল হোসেনের মতিঝিল কার্যালয়ে জোটের শরিক দলের নেতারা একদফা বসবেন। তবে এটিকে ‘অনানুষ্ঠানিক বৈঠক’ বলে দাবি করছে জোট।
জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সঙ্গে সম্পৃক্ত একাধিক নেতা জানিয়েছেন, এ বৈঠকে নির্বাচন-পরবর্তী সময়ে জোটের শরিকদের মধ্যে নানা ইস্যুতে সৃষ্ট সংকট, দূরত্ব এবং ভুল বোঝাবুঝি দূর করার চেষ্টা করা হবে। জোট ত্যাগে আলটিমেটাম দেয়া কাদের সিদ্দিকীকে নিবৃত করার চেষ্টা করা হবে। আলোচনা হতে পারে নতুন কর্মসূচি নিয়েও।
৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত একাদশ জাতীয় নির্বাচনের আগে যাত্রা শুরু করে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট। একসঙ্গে আন্দোলন, নির্বাচন এবং সরকার গঠনের লক্ষ্য নিয়ে মাঠে নামা জোটটি নির্বাচনে মাত্র আটটি আসনে জয়লাভ করে।
নির্বাচনে ব্যাপক অনিয়ম ও কারচুপির অভিযোগ তুলে ফল বর্জনের পাশাপাশি শপথ না নেয়ার সিদ্ধান্ত নেয় ঐক্যফ্রন্ট। কিন্তু একপর্যায়ে গণফোরামের দুই এমপি শপথ নিয়ে নেন। নানা নাটকীয়তার পর বিএনপি মহাসচিব ছাড়া দলটির বাকি ৫ সংসদ সদস্যও শপথ নিয়ে নেন। জোটের শরিকদের না জানিয়ে বিএনপি ও গণফোরাম এককভাবে সিদ্ধান্ত বদল করায় সৃষ্টি হয়েছে দূরত্ব। এ নিয়ে ফ্রন্টের শরিকদের অনেক নেতা প্রকাশ্যে সমালোচনাও করেন। এসব কারণে পুনর্নির্বাচনের দাবিতে আন্দোলনে নামার ঘোষণা দিয়েও শেষ পর্যন্ত আর মাঠে দেখা যায়নি ঐক্যফ্রন্টকে।