লজ্জার হারে সিরিজ খোয়াল বাংলাদেশ

0
17

 

ঘরের মাঠে শ্রীলঙ্কার জন্য লক্ষ্য ছিল ২৩৯ রানের। এই লক্ষ্য পাড়ি দেয়া খুব বেশি কঠিন কিছু নয় স্বাগতিকদের। দ্বিতীয় ম্যাচে বাংলাদেশের বিপক্ষে ৭ উইকেটের জয়ে এক ম্যাচ হাতে রেখেই সিরিজ জিতে নিল লঙ্কানরা।

দ্বিতীয় ম্যাচে বাংলাদেশের ছুঁড়ে দেওয়া ২৩৯ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে লঙ্কানরা ৪৪.৪ ওভারে ৩ উইকেট হারিয়ে জয়ের বন্দরে পৌঁছে। ৪৪ মাস পর কোনো ওয়ানডে সিরিজ জিতলো শ্রীলঙ্কা। আগামী ৩১ জুলাই সিরিজের তৃতীয় ও শেষ ম্যাচ খেলতে নামবে তামিমের নেতৃত্বাধীন বাংলাদেশ।

রোববার (২৮ জুলাই) তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচটি কলম্বোয় বাংলাদেশ সময় দুপুর তিনটায় শুরু হয়।

দ্বিতীয় ম্যাচে টস জিতে টাইগার দলপতি তামিম ইকবাল ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন। নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে বাংলাদেশ তুলেছে ২৩৮ রান। ক্যারিয়ারের অষ্টম সেঞ্চুরি পাননি মুশফিক। ৯৮ রানে অপরাজিত থাকেন। তার ১১০ বলে সাজানো ইনিংসে ছিল ৬টি চার আর একটি ছক্কার মার।

ইনিংসের ষষ্ঠ ওভারে এলবির ফাঁদে পড়েন সৌম্য সরকার। নুয়ান প্রদীপের বলে বিদায় নেওয়ার আগে বাঁহাতি এই ওপেনার ১৩ বলে একটি বাউন্ডারিতে করেন ১১ রান। দলীয় ২৬ রানের মাথায় প্রথম উইকেট হারায় বাংলাদেশ। দলীয় ৩১ রানের মাথায় বিদায় নেন তামিম ইকবাল। ইসুরু উদানার বলে বোল্ড হওয়ার আগে বাঁহাতি এই ওপেনার ৩১ বলে দুই বাউন্ডারিতে করেন ১৯ রান। প্রথম পাওয়ার প্লেতে বাংলাদেশ দুই ওপেনারকে হারিয়ে তোলে ৩৫ রান।

মুশফিকের সঙ্গে ২১ রানের জুটি গড়ে বিদায় নেন মোহাম্মদ মিঠুন। দলীয় ৫২ রানের মাথায় মিঠুনের বিদায়ে বাংলাদেশ তৃতীয় উইকেট হারায়। ২৩ বলে একটি বাউন্ডারিতে ১২ রান করে ফেরেন মিঠুন। ব্যক্তিগত ৮ রান করে মুশফিক ওয়ানডে ক্যারিয়ারে ৬ হাজার রান স্পর্শ করেন। ১৮ বলে ৬ রান করে আকিলা ধনাঞ্জয়ার বলে বোল্ড হন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। দলীয় ৬৮ রানে বাংলাদেশ চতুর্থ উইকেট হারায়। ৮৮ রানের মাথায় বিদায় নেন সাব্বির রহমান। রানআউট হয়ে সাজঘরে ফেরার আগে সাব্বির ১৯ বলে দুই বাউন্ডারিতে করেন ১১ রান।