ঢাবি প্রশাসন হলো ছাত্রলীগ নামক বাসের হেলপার

0
13

 

বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন সব সময় ছাত্রলীগের প্রতিনিধিত্ব করে অভিযোগ করে বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের আহ্বায়ক হাসান আল মামুন বলেছেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন শিক্ষার্থীদের পক্ষে কথা না বলে ভিসি ও ডিনরা সব সময় ছাত্রলীগের প্রতিনিধিত্ব করেন। ছাত্রলীগ যদি কোনো ধরনের অনিয়ম এবং দুর্নীতিও করে তবুও তাদের বিচার হয় না।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনকে ছাত্রলীগ নামক বাসের হেলপার বলেও আখ্যায়িত করেন তিনি।

বুধবার (১১ সেপ্টেম্বর) দুপুরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অপরাজেয় বাংলার সামনে এক মানববন্ধনে তিনি এ সব কথা বলেন ।

ডাকসু নির্বাচনের সময় ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদের একটি সান্ধ্যকালীন প্রোগ্রামে ছাত্রলীগের ৩৪ জন নেতাকে ‘নিয়মবহির্ভূতভাবে’ ভর্তির সুযোগ দেওয়ায় প্রতিবাদে বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ ‘অনিয়ম ও জালিয়াতির বিরুদ্ধে আমরা’ শিরোনামে এই মানববন্ধনের আয়োজন করে।

সংগঠনের যুগ্ম-আহ্বায়ক ফারুক হাসান বলেন, দুঃখের বিষয় আমরা এমন একজন ভিসি পেয়েছি, যিনি চিরকুটের মাধ্যমে অন্যায় ভর্তিতে সহায়তা করেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের অবস্থা এতটা খারাপ হয়ে গিয়েছে।

দাবি মেনে না নিলে দুর্বার আন্দোলন গড়ে তোলা হবে বলেও হুশিয়ারি দেন তিনি।

মানববন্ধনে তিন দফা দাবি জানান তারা। দাবিগুলো হলো, পরীক্ষা ছাড়া ভর্তি হওয়া ছাত্রলীগের ৩৪ জন নেতাকে অছাত্র ঘোষণা; পরীক্ষা ছাড়া ভর্তি হওয়া আট ডাকসু নেতার পদ শূন্য ঘোষণা করে ওই পদগুলোতে উপ-নির্বাচন দেওয়া এবং অবৈধ ভর্তিতে সহায়তাকারী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান ও অনুষদের ডিন শিবলী রুবাইয়াতুল ইসলামের পদত্যাগ।

মানববন্ধনে সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের যুগ্ম-আহ্বায়ক বিন ইয়ামিন মোল্লার সঞ্চালনায় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন যুগ্ম-সম্পাদক মশিউর রহমান, সোহরাব হোসেন প্রমুখ।