বীরগঞ্জে সন্ত্রাসী হামলায় নিহত-২,আহত-২

0
365

এন.আই.মিলন, দিনাজপুরঃ   দিনাজপুরের বীরগঞ্জে ১ব্যাক্তিকে কুপিয়ে হত্যার অভিযোগে ঠাকুরগাঁও দিনাজপুর মহাসড়ক অবরোধ করে এলাকাবাসী। অভিযুক্ত সন্দেহে একজনকে পুড়িয়ে হত্যা।

প্রত্যক্ষদর্শী এলাকাবাসী জানায়, বীরগঞ্জ উপজেলার পৌর শহরের ৯নংওয়ার্ডের জগদল ডাঙ্গাপাড়া এলাকার মৃত: কাশেম আলীর ছেলে সুরুজ মিয়া(৪৫) কে ৯ আগষ্ট বৃহস্পতিবার ভোরে ফজরের নামাজ পড়ে ফেরার পথে একইএলাকার তারা মিয়ার পুত্র রবিউল ইসলাম (২৫) কুপিয়ে হত্যা করে পালিয়ে যাওয়ার পথে পার্শবর্তী হাটখোলা এলাকার একটি মুরগী ফার্মের নৈশ্যপ্রহরী শহীদ (৩৫) ও তার ৩ বছরের পুত্র একরামুল অরফে সামিম এগিয়ে এলে তাদেরকেও ঘাতক রবিউল কুপিয়ে পালিয়ে যায়।

এতে ঘটনাস্থলেই সুরুজমিয়া মারা যায়। নৈশ্য প্রহরী শহীদ রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপালে ও তারপুত্র একরামুল বীরগঞ্জ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। এলাকাবাসী ঘাতক রবিউল ইসলামকে পলাতক অবস্থায় কাহারোল উপজেলারতেরমাইল গড়েয়া নামক স্থানের একটি চায়ের দোকান হতে আটক করে নিয়েএসে সকাল পৌনে ৮ টার দিকে ঘটনাস্থলে পিটিয়ে জীবন্ত পুড়িয়ে হত্যাকরে।

ঘাতক রবিউল ইসলামের বসতবাড়ী গুড়িয়ে দিয়েছে ক্ষুব্ধ গ্রামবাসি। এ সময় বাড়ী ছেড়ে পালিয়ে রক্ষা পিয়েছে তার পিতামাতাসহ স্বজনরা। হত্যাকান্ডের ঘটনার পর সকাল ৬ টা থেকে ঠাকুরগাঁও-দিনাজপুর মহাসড়ক অবরোধ করে এলাকাবাসী। পরে ঘটনাস্থলে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনেআনে ও সকাল ১০ টা থেকে যানচলাচল শুরু হয়।

এলাকাবাসী জানায়, রবিউল ইসলাম এলাকার সন্ত্রাসী হিসেবে পরিচিত।গত সোমবারও একজনকে এলোপাথারি কুপিয়ে আহত করায় এলাকাবাসী তারবিচারের দাবীতে ঠাকুরগাঁও-দিনাজপুর মহাসড়ক অবরোধ করে এলাকাবাসী।এছাড়াও এলাকাবাসী দাবী করে বলেন, প্রায় ২ মাস আগে সুরুজ মিয়ারভাতিজা চা দোকানি বশিরকে ভোরে কুপিয়ে হত্যা করে রবিউল।