বীরগঞ্জে সন্ত্রাসী হামলায় নিহত-২,আহত-২

0
42

এন.আই.মিলন, দিনাজপুরঃ   দিনাজপুরের বীরগঞ্জে ১ব্যাক্তিকে কুপিয়ে হত্যার অভিযোগে ঠাকুরগাঁও দিনাজপুর মহাসড়ক অবরোধ করে এলাকাবাসী। অভিযুক্ত সন্দেহে একজনকে পুড়িয়ে হত্যা।

প্রত্যক্ষদর্শী এলাকাবাসী জানায়, বীরগঞ্জ উপজেলার পৌর শহরের ৯নংওয়ার্ডের জগদল ডাঙ্গাপাড়া এলাকার মৃত: কাশেম আলীর ছেলে সুরুজ মিয়া(৪৫) কে ৯ আগষ্ট বৃহস্পতিবার ভোরে ফজরের নামাজ পড়ে ফেরার পথে একইএলাকার তারা মিয়ার পুত্র রবিউল ইসলাম (২৫) কুপিয়ে হত্যা করে পালিয়ে যাওয়ার পথে পার্শবর্তী হাটখোলা এলাকার একটি মুরগী ফার্মের নৈশ্যপ্রহরী শহীদ (৩৫) ও তার ৩ বছরের পুত্র একরামুল অরফে সামিম এগিয়ে এলে তাদেরকেও ঘাতক রবিউল কুপিয়ে পালিয়ে যায়।

এতে ঘটনাস্থলেই সুরুজমিয়া মারা যায়। নৈশ্য প্রহরী শহীদ রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপালে ও তারপুত্র একরামুল বীরগঞ্জ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। এলাকাবাসী ঘাতক রবিউল ইসলামকে পলাতক অবস্থায় কাহারোল উপজেলারতেরমাইল গড়েয়া নামক স্থানের একটি চায়ের দোকান হতে আটক করে নিয়েএসে সকাল পৌনে ৮ টার দিকে ঘটনাস্থলে পিটিয়ে জীবন্ত পুড়িয়ে হত্যাকরে।

ঘাতক রবিউল ইসলামের বসতবাড়ী গুড়িয়ে দিয়েছে ক্ষুব্ধ গ্রামবাসি। এ সময় বাড়ী ছেড়ে পালিয়ে রক্ষা পিয়েছে তার পিতামাতাসহ স্বজনরা। হত্যাকান্ডের ঘটনার পর সকাল ৬ টা থেকে ঠাকুরগাঁও-দিনাজপুর মহাসড়ক অবরোধ করে এলাকাবাসী। পরে ঘটনাস্থলে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনেআনে ও সকাল ১০ টা থেকে যানচলাচল শুরু হয়।

এলাকাবাসী জানায়, রবিউল ইসলাম এলাকার সন্ত্রাসী হিসেবে পরিচিত।গত সোমবারও একজনকে এলোপাথারি কুপিয়ে আহত করায় এলাকাবাসী তারবিচারের দাবীতে ঠাকুরগাঁও-দিনাজপুর মহাসড়ক অবরোধ করে এলাকাবাসী।এছাড়াও এলাকাবাসী দাবী করে বলেন, প্রায় ২ মাস আগে সুরুজ মিয়ারভাতিজা চা দোকানি বশিরকে ভোরে কুপিয়ে হত্যা করে রবিউল।