মেয়ের ধর্ষণের বিচার পাননি, উল্টো মিথ্যা মামলায় হাজিরা দিচ্ছেন টিএসসি’র স্বপন মামা

0
29

 

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্রের (টিএসসি) পরিচিত মুখ চা বিক্রেতা স্বপন মামা। প্রকৃত নাম আব্দুল জলিল হলেও, টিএসসিতে সবার কাছে স্বপন মামা নামেই তিনি অধিক পরিচিত।

 

প্রায় চার দশক ধরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় চা বিক্রেতা হিসেবে কাটানো আব্দুল জলিল তার মেয়েকে ধর্ষণের বিচার পাননি, বিচার চাইতে গিয়ে উল্টো তার বিরুদ্ধেই হয়রানিমূলক মামলা দায়ের করা হয়েছে।

 

সম্প্রতি ঢাবির এক শিক্ষার্থীকে ধর্ষণের প্রতিবাদে রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে শিক্ষার্থীদের এক মানববন্ধনে এসে সংহতি প্রকাশ করেন আব্দুল জলিল ওরফে স্বপন মামা। সংহতি প্রকাশের সময় বক্তব্য দিতে গিয়ে নিজের মেয়ের ধর্ষণের কথা বলে কেঁদে ফেলেন তিনি।

 

এবার টিএসসির সেই চা বিক্রেতা ‘স্বপন মামা’র পাশে এসে দাঁড়ালো বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি-ভিত্তিক সব সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠন ও ডাকসুর নেতারা। গতকাল বুধবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতির (ডুজা) কক্ষে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলন থেকে স্বপন মামার মেয়ের ধর্ষকের সর্বোচ্চ শাস্তি দাবি করা হয়েছে।

 

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন ঢাবি সাংবাদিক সমিতির সভাপতি আবির রায়হান। তিনি বলেন, টিএসসি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণ, বাংলাদেশের সাংস্কৃতিক মিলন কেন্দ্র। স্বপন মামা এই টিএসসি পরিবারের একজন। তিনি টিএসসিতে চা বিক্রি করেন। কয়েক যুগ ধরে টিএসসিতে চা বিক্রি করতে করতে তিনি টিএসসির একটি অবিচ্ছেদ্য অংশ হয়ে উঠেছেন। তার চায়ের কাপ হাতে আমরা স্বপ্ন বুনি, গান গাই। আন্দোলন-সংগ্রাম, আনন্দ-আবেগ, প্রেম-বিরহ ইত্যাদি আমাদের জীবনের বিচিত্র নানা গল্পের সারথি স্বপন মামার চা। টিএসসি মনে মাথা উঁচু করে বাঁচা। প্রগতিশীলতা, সুস্থ সংস্কৃতির অগ্রযাত্রা, সুন্দর সমাজ বিনির্মাণে সদা জাগ্রত এই প্রাঙ্গণ। অথচ এই জগ্রত পরিবারের সুদীর্ঘকালের সারথি স্বপন মামাই আজ একজন নির্যাতিত মানুষের নাম।