তরুণদের জন্য আজহারীর আবেগঘন ফেসবুক স্ট্যাটাস

0
24

 

বর্তমানে দেশের তরুণদের কাছে বেশ জনপ্রিয় এক ইসলামী বক্তার নাম ড. মিজানুর রহমান আজহারী। সুমধুর কণ্ঠ, সুস্পষ্ট ইংরেজি আর সমসাময়িক সময় নিয়ে সুন্দর অনুধাবন দিয়ে দেশের মানুষের কাছে বর্তমানে তুমুল জনপ্রিয় তিনি। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে প্রতিদিনই তার ওয়াজের ভিডিওয়ের খণ্ডাংশ ভাইরাল হতে দেখা যায়।

 

সম্প্রতি তরুণ সমাজের উদ্দেশে নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুক অ্যাকাউন্টে এক আবেগঘন স্ট্যাটাস দিয়েছেন মিজানুর রহমান আজহারী।

 

শুক্রবার রাতে দেয়া ড. মিজানুর রহমান আজহারীর সেই স্ট্যাটাসটি পাঠকদের জন্য হুবহু তুলে ধরা হলো–

 

‘এ দেশের যুবকদের গায়ে আল কোরআনের বাতাস লেগেছে। ওদের হৃদয়ে লেগেছে কালামে পাকের হিমেল ছোঁয়া। তাই তো পঙ্গপালের মতো ওরা ছুটে আসছে আল কোরআনের মাহফিলগুলোতে। আমরা কি পারব ওদেরকে ধরে রাখতে? বেঁধে রাখতে হেরার আলোর সুতো দিয়ে? নাকি আমাদের কাঁদা ছোড়াছুড়ি আর নোংরামিতে ওরা মুখ ফিরিয়ে নেবে। আর গা ভাসাবে অপসংস্কৃতির গড্ডালিকা প্রবাহে?’

 

এর পর মহান আল্লাহর কাছে তিনি প্রার্থনা করেন– ‘হে আরশের মালিক, আমাদের দুর্বলতা ও ব্যর্থতার কারণে সম্ভাবনার এ দ্বার যেন রুদ্ধ না হয়। আমরা যেন হেরে না যাই। শেষ পর্যন্ত যেন লড়ে যেতে পারি তোমার কোরআনের জন্য।’

 

এ স্ট্যাটাসটি লেখার আগে ফরিদপুরের শ্যামসুন্দরপুর জামিয়া আরাবিয়া ফরিদিয়া কওমি মাদ্রাসা ও এতিমখানায় ইসলামী মহাসম্মেলনে বক্তব্য রাখেন আজহারী। এদিন কনকনে শীত উপেক্ষা করে তার ওয়াজ শুনেছেন ফরিদপুরের লাখো মানুষ।

 

শুক্রবার রাত ৯টায় মঞ্চে ওঠেন আজহারী। ৯টা ৫ মিনিট থেকে রাত ১০টা ৫৫ মিনিট পর্যন্ত প্রায় ২ ঘণ্টা বক্তব্য দেন তিনি।

হজরত মুহম্মদ (সা.) ও সাহাবি হজরত ওমর ফারুকের জীবনীসহ বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা করেন আজহারী। ধর্মপ্রাণ লাখো মুসল্লি মুগ্ধ হয়ে তার ওয়াজ শোনেন।

 

এর আগে বিকাল সাড়ে ৪টার দিকে হেলিকপ্টারে শ্যামসুন্দরপুরে পৌঁছান মিজানুর রহমান আজহারী।