চাঁপাইনবাবগঞ্জ নিখোঁজের ২২ ঘন্টা পর কিশোরির মরদেহ উদ্ধার

0
23

চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলায় মহানন্দা নদীতে ২৩ জুন মঙ্গলবার দপুরে ডুবে নিখোঁজ কিশোরি সম্পা খাতুনের (১৩) মরদেহ ২২ ঘন্টা পর বুধবার (২৪ জুন) দুপুরে নদী থেকে ভাসমান অবস্থায় উদ্ধার করা হয়েছে। কিশোরী সম্পা বালিয়াডাঙ্গা ইউনিয়নের শিমুলতলা গ্রামের ৮নং ওয়ার্ডের মৃত মিজানুর রহমানের মেয়ে এবং শিমুলতলা আইডিয়াল কেজি স্কুলের ৫ম শ্রেণীর ছাত্রী।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন অফিসার মেহেরুল ইসলাম জানান,মঙ্গলবার দুপুর দেড়টার দিকে শিমুলতলা গ্রামের বেলতলা ঘাটে গোসল করতে গিয়ে নিখোঁজ হন সম্পা। পরে খবর পেয়ে প্রথমে চাঁপাইনবাবগঞ্জ ফায়ার সার্ভিসের একটি উদ্ধার দল সেখানে উদ্ধার অভিযান পরিচালনা করে। কিন্তু ওই স্থানে নদীর গভীরতা ও পিচ্ছিল হওয়ায় রাজশাহী থেকে ডুবুরী দলকে ডাকা হয়।

পরে বিকেল সাড়ে চারটার দিকে রাজশাহী থেকে আসা ডুবুরী দল ও ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা যৌথভাবে নদীতে উদ্ধার অভিযান শুরু করে। কিন্তু অনেক খোঁজাখুঁজির পরে সম্পার কোন সন্ধান না পেয়ে ও রাজশাহী অঞ্চলে ডুবুরী সংকটের কারনে রাত ৮টার দিকে অভিযান স্থগিত করা হয়। এদিকে বালিয়াডাঙ্গা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মো. তরিকুল ইসলাম বুধবার দুপুরে জানান, ফায়ার সার্ভিস উদ্ধার অভিযান স্থগিত করলেও পরিবারের সদস্যরা নৌকা ও জাল নিয়ে সকাল থেকে আবারও নদীতে উদ্ধার তৎপরতা চালাতে থাকে। এরই এক পর্যায়ে দুপুর পৌনে ১২ টার দিকে ডুবে যাবার স্থান থেকে প্রায় আধা কিলোমিটার দূরে বালুগ্রাম তেকোনা মোড় তাহিরপুর ঘাট সংলগ্ন
নদীতে সম্পার ভাসমান মরদেহ পাওয়া যায়।

এ বিষয়ে সদর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) জালাল উদ্দিন বলেন, আবেদনের প্রেক্ষিতে সম্পার মরদেহ ময়নাতদন্ত না করেই পরিবারের নিকট হস্তান্তর করা হয়েছে। এ ব্যাপারে থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা হয়েছে।