সাগর-রুনি হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত অজ্ঞাতনামা নমুনা শনাক্ত

0
6

 

ডিএনএ পরীক্ষায় সাংবাদিক দম্পতি সাগর-রুনি হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত অজ্ঞাতনামা দুই পুরুষের নমুনা পাওয়া গেছে। তাদের চিহ্নিতের উদ্দেশ্যে যুক্তরাষ্ট্রের একটি ল্যাবের সঙ্গে যোগাযোগ করেছে মামলার তদন্ত সংস্থা। ওই ল্যাবের ডিএনএ থেকে অপরাধী/জড়িত ব্যক্তির ছবি প্রস্তুতের সক্ষমতা আছে। যুক্তরাষ্ট্রের ওই প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে পূর্বের প্রতিষ্ঠানের গবেষণালব্ধ ফলাফল সমন্বয় করে ঘটনায় জড়িত ব্যক্তিদের ছবি প্রস্তুতের প্রচেষ্টা অব্যাহত আছে। ইতোমধ্যে ছবি প্রস্তুতের জন্য চার্জ হিসাবে মার্কিন ওই প্রতিষ্ঠানকে ১২০০ ডলার ফি পরিশোধ করা হয়েছে। সাগর-রুনি হত্যা মামলার অগ্রগতি প্রতিবেদনে এমনটি উল্লেখ করেছেন মামলার তদন্ত সংস্থা র‌্যাব। চলতি বছরের ৮ সেপ্টেম্বর ঢাকা মহানগর হাকিম আদালত সাগর-রুনি হত্যা মামলার অগ্রগতির বিষয়ে প্রতিবেদন দাখিলের জন্য নির্দেশ দেন তদন্ত সংস্থা র‌্যাবকে। আদালতের আদেশে ৫ অক্টোবর মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা র‌্যাব ফোর্সেস সদর দফতরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার খন্দকার মো. শফিকুল আলম আদালতে একটি অগ্রগতি প্রতিবেদন দাখিল করেন। অগ্রগতি প্রতিবেদনে তিনি উল্লেখ করেন, ‘মামলাটি ২০১৯ সালের ৭ জুলাই থেকে আমি তদন্ত করে আসছি। তদন্তকালে পূর্ববর্তী তদন্তকারী অফিসার তদন্তের আনুষঙ্গিক কাজ করাসহ মোট আটজন আসামি গ্রেফতার করেছেন। গ্রেফতারকৃত আসামিদের মধ্যে ছয়জন বর্তমানে জেল-হাজতে আছেন। দুজন জামিনে মুক্ত আছেন।’ ‘মামলাটি যথাযথভাবে তদন্তের লক্ষ্যে জব্দকৃত আলামত ডিএনএ (DNA) পরীক্ষার জন্য আদালতের অনুমতিক্রমে আইএফএস (Independent Forensic Service), ইউএসএ (USA) বরাবর প্রেরণ করা হয়। ডিএনএ পরীক্ষার প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয় যে, পূর্বে প্রেরিত আলামতসমূহ এবং গ্রেফতারকৃত আসামিদের Buccal Swab পর্যালোচনায় অজ্ঞাতনামা দুই পুরুষ ব্যক্তির ডিএনএ পাওয়া গেছে। তদন্তকালে উক্ত অজ্ঞাতনামা পুরুষ ব্যক্তিদ্বয়কে চিহ্নিত করার উদ্দেশ্যে প্রচেষ্টার অংশ হিসাবে প্যারাবন স্ন্যাপশট (Parabon Snapshot) নামীয় মার্কিন অপর একটি ডিএনএ ল্যাবের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়েছে। উক্ত প্রতিষ্ঠানটির ডিএনএ থেকে অপরাধী/জড়িদ ব্যক্তির ছবি প্রস্তুত করার সক্ষমতা রয়েছে।’ ‘প্রতিষ্ঠানটির সঙ্গে পূর্বের প্রতিষ্ঠান আইএফএস-এর সমন্বয়পূর্বক ঘটনায় জড়িত ব্যক্তিদের ছবি প্রস্তুতের প্রচেষ্টা অব্যাহত আছে। আইএফএস কর্তৃক সংরক্ষিত বর্ণিত ডিএনএ প্যারাবন স্ন্যাপশট নামীয় প্রতিষ্ঠানকে সরবরাহের সার্ভিস চার্জ হিসাবে ১২০০ মার্কিন ডলার ফি নির্ধারণ করায় যথাযথ প্রক্রিয়া অনুসরণপূর্বক ব্যাংকিং চ্যানেলের মাধ্যমে নির্ধারিত অর্থ পরিশোধ করা হয়েছে। সর্বশেষ ২০২০ সালের ২৯ সেপ্টেম্বর আইএফএস র‌্যাব কর্তৃপক্ষকে উল্লিখিত পরীক্ষার অগ্রগতির বিষয়ে মতামত প্রদানের জন্য ই-মেইল প্রেরণ করেছি। আইএফএস ল্যাব কর্তৃপক্ষ এ বিষয়ে এখনও কোনো মতামত প্রদান করেনি। ডিএনএ প্রযুক্তির মাধ্যমে সাক্ষ্যপ্রমাণ সংগ্রহের প্রচেষ্টাসহ মামলার তদন্ত কার্যক্রম অব্যাহত আছে।’