পৃথিবীর আয়ু যতদিন বাড়ছে দিন দিন প্রযুক্তির ব্যবহার বাড়েই চলেছে ।

0
25

তথ্য প্রযুক্তি (আইটি) (ইংরেজি: Information technology, সক্ষেপে IT) তথ্য’ শব্দটির ইংরেজি পরিভাষা হলো ‘Information’। ইংরেজি ইনফরমেশন শব্দটি ল্যাটিন শব্দমূল ‘informatio’ থেকে উৎপত্তি লাভ করেছে। এই শব্দটির ক্রিয়ামূল ‘informare’, যার অর্থ: কাউকে কোনো কিছু অবগত করা, পথ দেখানো, শেখানো, আদান-প্রদান ইত্যাদি। দিন দিন সারা বিশ্বে তথ্য প্রযুক্তির ব্যবহার বেড়েই চলছে। কিন্তু এর ব্যবহার সবার জন্য কল্যাণ বয়ে আনে না। এর যেমন ভালো দিক রয়েছে রয়েছে খারাপ । এ সম্পর্কে আমরা যেনে নেই এবং সাথে যেনে নেই কি ভাবে তথ্য প্রযুক্তির মাধ্যমে আমরা নিজেদের কেরিয়ার গড়তে পারবে।

লেখার শুরুতেই বলেছি, বর্তমান সময়ে ব্যাপকভাবে প্রযুক্তির প্রচার ও প্রসার ঘটেছে। যার দরুন, শহর থেকে শুরু করে প্রত্যন্ত অঞ্চলেও পৌঁছে গেছে ইন্টারনেট সুবিধা। কিন্তু তরুনরা এই ইন্টারনেটের ব্যবহারটি নেশার মত করে নিয়েছে । নেশা বলার কারন হচ্ছে নেশা মানুষকে যেমন খারাপ দিকে নিয়ে যায় প্রযুক্তির অপব্যবহারও মানুষকে খারপ দিকে নিয়ে যায় । মানুষ সামাজিক যোগাযেগ মাধ্যম সহ নানান নিষিদ্ধ সাইটে সময় ব্যয় করে থাকে । যার ফলে তাদের মানষিক বিকৃতি ঘটে । তরুণদের একটি বিরাট অংশ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহার করে থাকে ,য়েমন : ফেসবুক,টুইটার, ইনিস্ট্রাগ্রাম, এমনকি বর্তমানে এর সাথে নতুন করে টিকটক,লাইকি ইত্যাদিইত্যাদি । এসবের অপব্যবহারের মাধ্যমে মানুষ অনেক সময় অনেক ধরনের গুজব ছড়িয়ে দিয়ে থাকেন যার কারনে ঘটে যায় হত্যা সহ নানান ধরনের সামাজিক পারিবারিক সমস্যা । ইন্টারনেট ব্যবহারকারী সহজে নিজের পরিচয় গোপন রাখতে পারে বলে কাউকে হুমকি দেওয়া, ভুয়া সম্পর্কের ফাঁদে ফেলে টাকা হাতিয়ে নেওয়া অথবা প্রতিশোধ গ্রহণের জন্য ব্যক্তিগত অন্তরঙ্গ মুহূর্তের দৃশ্য ধারণ করে বিভিন্ন অনলাইন সাইটে ছড়িয়ে দেওয়া এসব কাজ অনায়াসে সম্ভব হয়। ২০১৩ সালের পরিসংখ্যান অনুযায়ী সাইবার আক্রমণের শিকার বিশ্বের শীর্ষ দুইটি দেশ হচ্ছে রাশিয়া ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। মজার ব্যাপার হলো সাইবার আক্রমণের উপকরণ মলওয়্যার (Malware), ভাইরাস, মাইএসকিউএল ইনজেকশন (MySQL injection) ইত্যাদির উৎপাদন এই দুইটি দেশেই তুলনামূলকভাবে বেশি। সমগ্র পৃথিবীর ৪০ শতাংশ মলওয়্যার রাশিয়া থেকে বিশ্বব্যাপী ছড়ানো হয়।

পৃথিবীর আয়ু যতদিন বাড়ছে দিন দিন প্রযুক্তির ব্যবহার বাড়েই চলেছে । বর্তমান সময়ে তরুণদেরকে কম্পিউটার এবং ইন্টারনেটের সঠিক ব্যবহার সম্পর্কে জানতে হবে । কারন Facebook এবং Social Media এর যোগাযোগ মাধ্যমকে কাজে লাগিয়ে অনেক ভাবে অর্থ উপার্জন করছেন । খুব সহজেই অন্যদেশের খবর নেয়া যায় । আমাদের আশেপাশে অনেক মানুষ আছে যারা ফেসবুকের মাধ্যমে নিজেদের ব্যবসা প্রচার করছেন । আমাদের আশেপাশে এমন অনেক মানুষ আছে তারা কিছু App’s ব্যবহার করে ভর্তি হচ্ছে মানুষিক হাসপাতালে । এই App’s কাউকে মানসিক ডাক্তারের কাছে পৌঁছে দেয় আবার কাউকে পৌঁছে দেয় সফলতার কাছে। আমরা খুব সহজেই রেজাল্ট দেখতে পারি ইন্টারনেটের মাধ্যমে । আমাদের দেশে বেকারত্ব একটি সামাজিক সমস্যা । লার্নিং এন্ড আর্নিং ডেভেলপমেন্ট প্রজেক্ট( LEDP)” প্রকল্পের আওতায় তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের অধীনে সম্পূর্ণ সরকারি অনুদানে কর্মসংস্থানের সুযোগ সহ ৫০ দিন ব্যাপি (২০০ ঘন্টা) প্রফেশনাল আউটসোর্সিং ট্রেনিং করিয়ে থাকেন । ( http://ledp.ictd.gov.bd )
কোর্স সমূহ:
১.ওয়েব ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট
২.গ্রাফিক্স ডিজাইন
৩.ডিজিটাল মার্কেটিং
তাই আমরা যত তাড়াতাড়ি এই প্রযুক্তি শিক্ষা নিতে পারবো, ততো তাড়াতাড়ি আমরা ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়তে পারব । আমরা সবসময় ভালোকে গ্রহন করবো । প্রযুক্তির অপব্যবহার মানুষের জীবনে এনে দেয় বড় ধরনের হুমকি ।সবশেষে বিজ্ঞানের আবিষ্কারের সঠিক ও উপযুক্ত ব্যবহারই পারে আমাদের একটি সুন্দর সমাজ উপহার দিতে ।

লেখক : মো: মোরশেদ