সৈয়দপুরে স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে থানায় মামলা দায়ের

0
5

 

নীলফামারীর সৈয়দপুরে নবম শ্রেণির এক মেধাবী ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে একটি মামলা হয়েছে। গতকাল শনিবার (২১ নভেম্বর) নির্যাতনের শিকার ওই স্কুল ছাত্রীর মা বাদী হয়ে আকতারুজ্জমান (২৮) নামের একজনকে আসামী করে স্থানীয় থানায় ওই মামলাটি দায়ের করেন। মামলার আসামী বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) এর একজন সৈনিক এবং বর্তমানে ঢাকা পিলখানা বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ এর প্রধান কার্যালয়ে কর্মরত রয়েছেন বলে জানা গেছে।

মামলার অভিযোগে বলা হয়, সৈয়দপুর উপজেলার বাঙ্গালীপুর ইউনিয়নের লক্ষণপুর বালাপাড়া (ব্রাম্মনপাড়া) মৃত. জয়নাল আবেদীনের ছেলে মো. আকতারুজ্জামান। আর একই এলাকার ওই স্কুল ছাত্রী। সে বাঙ্গালীপুর ইউনিয়নের লক্ষণপুর স্কুল এন্ড কলেজের নবম শ্রেণীতে পড়ে। ঘটনার দিন গত ৯ নভেম্বর বিকেলে আনুমানিক ৫টার দিকে প্রতিবেশি মো. আকতারুজ্জামান ওই স্কুল ছাত্রীর বাড়িতে আসে। এ সময় আকতারুজ্জামান ওই স্কুল ছাত্রীর বাড়িতে তাঁর বাবা-মার অনুপস্থিতিতে তাকে একটি মোটরসাইকেলে তুলে নিয়ে যায়। এরপর ওই দিন তাঁর বাবা-মা বাড়িতে এসে মেয়েকে দেখতে না পেয়ে খোঁজাখুঁজি করতে থাকেন। খোঁজাখুজির এক পর্যায়ে পরদিন গত ১০ নভেম্বর রাত আনুমানিক ৯টার দিকে আকতারুজ্জামান ওই স্কুল ছাত্রীকে তাদের বাড়ি সামনে নামিয়ে দিয়ে যায়। এরপর ওই স্কুল ছাত্রী বাড়িতে ঢুকলে তাকে বেশ অসুস্থ অবস্থায়ও দেখতে পান। এ সময় কোথায় গিয়েছিল তাঁর পরিবারের লোকজনের জিজ্ঞাসাবাদে সে অসংলগ্ন কথাবার্তা বলতে থাকে। পরবর্তীতে বাড়িতে রেখে তাকে চিকিৎসা প্রদান করা হয়। কিন্তু তাতেও সে সুস্থ না হয়ে বরঞ্চ তাঁর অবস্থার অবনতি ঘটতে থাকে। এর পর তাঁর অবস্থা বেগতিক দেখে তাঁর পরিবারের লোকজন তাকে গত ১২ নভেম্বর নীলফামারী সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন। পরবর্তীতে সেখান থেকে তাকে রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ওসিসি সেন্টারে রেফার্ড করা হয়। বর্তমানে ওই স্কুল ছাত্রী সেখানে চিকিৎসাধীন রয়েছে।
এ ঘটনায় ওই স্কুল ছাত্রী মা মকছুদা বেগম বাদী হয়ে গতকাল শনিবার (২১ নভেম্বর) সৈয়দপুর থানায় একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেছেন।
সৈয়দপুর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. আতাউর রহমান মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, মামলাটি গুরুত্বের সঙ্গে তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। আর ভিটটিম যেহেতু অসুস্থ অবস্থায় রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে,তাই সে সুস্থ হয়ে উঠলেই ঘটনার বিষয়ে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা সহ তাঁর ডাক্তারি পরীক্ষা করা হবে।