বাগাতিপাড়ায় এমপি’র সামনে সাংবাদিক পেটানো গনি এখন থানার অতিথি

0
204

নাহিদ হোসেন, নাটোরঃ  এটাই নাকি বাস্তবতা! এমপি’র সামনে সাংবাদিক পেটানো নাটোরের বাগাতিপাড়ার সেই আবদুল গনি থানায় পুলিশের বিদায় অনুষ্ঠানের বিশেষ মেহমান। যার বিরুদ্ধে থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। সেই গনিই নাকি থানার বিশেষ মেহমান। আশ্চর্য্য হওয়ার কিছুই নেই। এটা সাংবাদিকদের নিয়তি!

জানা যায়, ৫ সেপ্টম্বর নাটোর-১ (বাগাতিপাড়া-লালপুর) আসনের সাংসদ এর বর্ধিত এক সভার সংবাদ সংগ্রহ করতে যায় দৈনিক জনতা পত্রিকার বাগাতিপাড়া উপজেলা প্রতিনিধি আবুল কালাম। সংবাদ সংগ্রহ শেষে দুপুরের খাবারের জন্য সাংবাদিককে আমন্ত্রণ জানানো হয়। তিনি খেতে বসলে বাগাপিতপাড়া উপজেলা আওয়ামীলীগের প্রচার সম্পাদক আবদুল গনি তার খাবার প্লেট কেড়ে নিয়ে এমপির সামনে বেদম মারপিট শরু করে। পরে তার সহকর্মী মোহাম্মদ হাসানসহ কিছু মানুষ তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্রে ভর্তি করে। এই ঘটনায় সাংবাদিক আবুল কালাম বাদি হয়ে বাগাতিপাড়া মডেল থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন। আবদুল গনির নামে থানায় অভিযোগ করার পর থেকে অভিযোগ তুলে নিতে বিভিন্নভাবে হুমকি দেয়া হচ্ছে বলে সাংবাদিক কালাম জানান।

সেই আবদুল গনিকে নিয়েই বাগাতিপাড়া মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আব্দুল্লাহ আল মামুনের ৯ সেপ্টেম্বর থানা চত্বরে বিদায় সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের তিনিই বিশেষ অতিথি। সাংবাদিককে পেটানো থানায় লিখিত অভিযোগ পেলেও ৬ দিনেও আসামি গনির বিরুদ্ধে নেইনি কোন ব্যবস্থা। উল্টো সেই অভিযুক্ত আবদুল গনি বাগাতিপাড়া মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ এর বিদায় সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি। এঘটনায় নাটোরের সাংবাদিকদের মাঝে গভীর উদ্বেগ এবং ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

এটা সাংবাদিক সমাজের জন্য লজ্জার ও রীতিমত কস্টের। আমরা চাই দেশের উন্নয়ন। আর এই উন্নয়নকে ধরে রাখতে হলে প্রয়োজন সাংবাদিক নির্যাতনমুক্ত একটি আগামি বাংলাদেশ। অভিযোগ অস্বীকার করে আবদুল গনি দাবি করেন, এ হামলার সঙ্গে আমার কোনো সম্পৃক্ততা নেই।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ কর্মকর্তা বলেন, সাংবাদিকের শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাতের জখম ছিল।
বাগাতিপাড়া থানার ওসি জানান, এই ঘটনায় একটি অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নিব।
এদিকে বাগাতিপাড়া উপজেলা প্রেস ক্লাবের পক্ষ থেকে ৬ সেপ্টেম্বর হামলাকারী আবদুল গনিতে গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তের শাস্তির দাবি জানানো হয়। তাকে গ্রেফতার না করলে বৃহত্তর আন্দোলনেরও ঘোষণা দেয়া হবে বলে জানান প্রেস ক্লাবের সাংবাদিকরা।