এই সরকারের ওপর বিশ্বাসযোগ্যতা আর জনগণের নাই-নোমান

0
179

স্টাফ রিপোর্টারঃ   আজ মঙ্গলবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে বাংলাদেশ সম্মিলিত পেশাজীবী পরিষদ (বিএসপিপি) আয়োজিত খালেদা জিয়ার সুচিকিৎসা ও তাঁর নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে আয়োজিত মানববন্ধনে বিএনপির ভাইস-চেয়ারম্যান আব্দুল্লাহ আল নোমান বলেন, বেগম জিয়ার মুক্তি ও চিকিৎসার দাবিতে দেশের মানুষ গর্জে উঠবে।

এ সময় তিনি আরও বলেন, ‘জাতীয় নির্বাচন সরকারের ভাষায় তাদের নেতৃত্বে হবে। এই সরকারের ওপর বিশ্বাসযোগ্যতা আর জনগণের নাই। কাজেই এই সরকারের মাধ্যমে নির্বাচন হতে পারে না। এই সরকারের মাধ্যমে কোনো ধরনের এককভাবে নতুন করে, ছোট্ট করে মন্ত্রিসভা করা সেটাও অযৌক্তিক।’

তিনি বলেন, আমরা সেটা গ্রহণ করবো না। আমরা চাই নির্বাচনের খালেদা জিয়ার মুক্তি।’

ডিসেম্বরে নির্বাচনের কথা বলে ছোট আকারে সরকারের মন্ত্রীসভা গঠন অযৌক্তিক বলে মন্তব্য করেছেন।

সম্মিলিত পেশাজীবী পরিষদের এই মানববন্ধ‌নে উপ‌স্থিত ছিলেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান খন্দকার মাহবুব হোসেন। তিনি বলেন, ‘লক্ষ্য বাস্তবায়নের জন্য সরকার একের পর এক মিথ্যা মামলায় বেগম জিয়াকে কারারুদ্ধ রেখেছে। যে মামলায় তাঁর সাজা হয়েছে সেই মামলায় তিনি জামিনে মুক্ত। অথচ ২০১৪-১৫ সালের মামলায় তাঁকে জড়িত করে তাঁর কারাজীবন দীর্ঘায়িত করছে সরকার। যে দেশে গণতন্ত্র নাই, সে দেশে আইনের শাসন থাকে না। গণমাধ্যমের স্বাধীনতা থাকে না। তাই বলছি, আইনি প্রক্রিয়ায় বেগম জিয়াকে মুক্ত করা কঠিন হবে। কারণ তাঁর কারাবন্দিত্বের সিদ্ধান্তগুলো রাজনৈতিক। তাই রাজনৈতিকভাবেই মাঠে থেকে তাঁকে আমাদের মুক্ত করতে হবে।’

এ ছাড়া বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যন ও সাংবা‌দিক নেতা শওকত মাহমুদ বলেন, ‘আমরা সুস্থ এবং মুক্ত খালেদা জিয়াকে নিয়েই নির্বাচনে যেতে চাই। মুক্তি যত বিলম্বিত হবে আন্দোলন তত  তীব্র হবে। আওয়ামী লীগের নেতারা বলছেন বিএনপি ক্ষমতায় এলে রক্ষা নাই। আমরা বলি খালেদা জিয়াকে মুক্তি না দিলে আপনাদের রক্ষা নাই।’

মানববন্ধ‌নে আরো উপ‌স্থিত ছি‌লেন, বাংলা‌দেশ ফেডা‌রেল সাংবা‌দিক ইউনিয়নের সভাপ‌তি রুহুল আমিন গা‌জী, বিএন‌পির ভাইস চেয়ারম্যান ডা. এ জেড এম জা‌হিদ, ‌বিএন‌পির গণশিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক অধ্যক্ষ সে‌লিম ভূইয়া, জিয়া নাগরিক ফোরামের সভাপতি লায়ন মিয়া, মো. আনোয়ার প্রমুখ।