গ্রেনেড হামলায় আম্মা প্রাণ হারিয়েছেন : পাপন

0
274

মিলাদ হোসেন অপু, ভৈরব :
বাংলাদেশ মহিলা আওয়ামীলীগ সভানেত্রী শহীদ আইভী রহমানের পুত্র নাজমুল হাসান পাপন বলেছেন, ১৫ আগস্টের পরই ২১ আগস্টের গ্রেনেড হামলাকে ইতিহাসের সবচেয়ে নির্মম ঘটনা। ওইদিন আমার আম্মা প্রাণ হারিয়েছেন। তার সাথে অনেক নেতাকর্মী নিহত হয়েছেন। আমার দৃঢ় বিশ্বাস আমরা সঠিক বিচার পাব এবং যে রায় হবে সে রায়ে যারা এ ঘটনায় জড়িত তাদেরকেই বিচার করা হবে।’ সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

২০০৪ সালে বঙ্গবন্ধু এভিনিউতে শেখ হাসিনাকে হত্যার চেষ্টায় চালানো হয়। এই হামলায় প্রাণ হারান সে সময়ের মহিলা আওয়ামী লীগের প্রধান শহীদ আইভী রহমানসহ ২৩ জন। আহত হয় কয়েকশত নেতা-কর্মী।

১৪ বছর পর আগামী বুধবার এই মামলার রায়ের তারিখ ঘোষণা হয়েছে। রায়ের দুই দিন আগে আজ সোমবার কিশোরগঞ্জের ভৈরবে নিজ এলাকায় ভৈরবে পৌরসভার মেয়র কক্ষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এ কথা বলেন বিসিবি সভাপতি।

তিনি আরো বলেন, যে যত শক্তিশালীই ও উচ্চ পদধারী হোক না কেন যারাই ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার ঘটনায় জড়িত আজ হোক কাল হোক তাদের বিচার হবেই। একটা সময় ছিল যে ১৫ আগস্টের বিচার হবে কি না তা সন্দেহ ছিল কিন্তু ঐ ঘটনার বিচার হয়েছে।  আমারও সে বিশ্বাসটা ছিল জননেত্রী শেখ হাসিনা যত দিন আছেন উনার পক্ষেই সম্ভব ভযাবহ ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার বিচার করা।’

বিএনপি ক্ষমতায় থাকাকালে এই মামলায় হামলাকারীদের বাঁচিয়ে দিতে নিরীহ জজ মিয়াকে ফাঁসানোর পরিকল্পনা করেছিল। তবে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের আমলে সেই চেষ্টা প্রকাশ হয়ে যায়।

পাপন সে বিষয়টি তুলে ধরে বলেন, ‘জজ মিয়ার  মতো নাটক সাজিয়ে এ বিচার না হওয়ার ষড়যন্ত্র হয়েছিল। আপনারা আল্লাহর কাছে দোয়া করবেন যেন এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচার পাই।’