ব্রিটিশ সাংসদদের কেবিনে নিয়মিত মিলছে ব্যবহৃত কন্ডোম! রীতিমতো বিরক্ত হয়ে উঠেছেন সাফাইকর্মীরা।

0
185

বিষয়টি সামনে আসতেই রীতিমতো হইচই শুরু হয়ে গিয়েছে বিভিন্ন ব্রিটিশ সংবাদ মাধ্যম-সহ একাধিক আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যমে।

অফিসের মধ্যে কাগজের টুকরো বা কখনও-সখনও খাবারের প্যাকেট পড়ে থাকাটা দৃষ্টিকটূ হলেও স্বাভাবিক ঘটনা। কিন্তু অফিসে কর্তা-ব্যক্তিদের কেবিনে ছড়িয়ে ছিটিয়ে যদি ব্যবহৃত কন্ডোম পড়ে থাকে, তা হলে সে ঘটনাকে আর স্বাভাবিক বলা চলে না। আর যদি সংসদ সদস্যদের কেবিনে ব্যবহৃত কন্ডোম পড়ে থাকে, সে ঘটনাকে কী বলবেন? বলার ভাষা খুঁজে পাচ্ছেন না তো! বিশ্বাস করতেও কষ্ট হচ্ছে বোধহয়! কিন্তু অবিশ্বাস্য হলেও এমনই প্রায় নিয়মিত অভিজ্ঞতা হচ্ছে ব্রিটিশ পার্লামেন্টের (এমপি) সংসদ সদস্যদের কেবিন পরিস্কারের দায়িত্বে থাকা সাফাইকর্মীদের।

‘দ্য সান, ইউকে’, ‘দ্য গার্ডিয়ান’-এর মতো একাধিক আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশিত খবর অনুযায়ী, ব্রিটিশ সাংসদদের (এমপি) কেবিন পরিস্কার করতে গেলেই প্রায় প্রতিদিনই বমি বা ব্যবহৃত কন্ডোম সাফ করতে হচ্ছে সাফাইকর্মীদের। ব্রিটিশ এমপিদের বা তাঁদের অধীনস্থ কর্মচারীদের এ হেন আচরণে রীতিমতো তিতিবিরক্ত হয়ে উঠেছেন সাফাইকর্মীরা। তাই বাধ্য হয়েই যে ক্লিনিং সংস্থার তারা কর্মচারি, তার উর্দ্ধতন কর্তাকে বিষয়টি সবিস্তারে অভিযোগ জানিয়েছেন সাফাইকর্মীরা।

বিষয়টি সামনে আসতেই রীতিমতো হইচই শুরু হয়ে গিয়েছে বিভিন্ন ব্রিটিশ সংবাদ মাধ্যম-সহ একাধিক আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যমে। বিষয়টিকে কেন্দ্র করে সমালোচনা শুরু হয়েছে বিভিন্ন মহলে। জানা গিয়েছে, পরিস্থিতির পরিবর্তন আনতে সার্ভিস এগ্রিমেন্ট চালুর কথা ভাবা হচ্ছে, যাতে ব্রিটিশ এমপিরা বা তাঁদের অধীনস্থ কর্মচারীরা ঠিক মতো তাদের অফিস কেবিনের সদ্ব্যবহার করেন।