চাঁপাইনবাবগঞ্জের চর বাগডাঙ্গায় পদ্মার ভাঙ্গন রোধ কাজ শুরু ডিসেম্বরে

0
301

এস এম সাখাওয়াত জামিল দোলন,চাঁপাইনবাবগঞ্জঃ চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলার চরবাগডাঙ্গা ইউনিয়নকে পদ্মার ভাঙ্গন থেকে রক্ষাকরতে আগামী ডিসেম্বর মাস থেকে পদ্মা নদী তীর সংরক্ষণ কার্যক্রম শুরু হবে বলেজানিয়েছেন বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ডের উচ্চ পর্যায়ের একটি প্রতিনিধি দল।

শুক্রবার চাঁপাইনবাবগঞ্জের চরবাগডাঙ্গায় পদ্মার ভাঙ্গন কবলিতএলাকা সরেজমিন পরিদর্শন কালে তারা ভাঙ্গন কবলিত মানুষের সাথে কথা বলেন এবংভাঙ্গনরোধে বর্ষা মৌসুম নয় বরং শুস্ক মৌসুমেই কাজ শুরু ও শেষ করার আশ্বাসপ্রদাণ করেন। এই সময় চাঁপাইনবাবগঞ্জ-৩ সদর আসনের সংসদ সদস্য আব্দুল ওদুদ,জেলা প্রশাসক এ.জেড.এম নূরুল হক, ৫৩ বিজিবি’র ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক মেজরএখলেশুর রহমান, সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার আলমগীর হোসেন প্রতিনিধিদলের সাথে উপস্থিত ছিলেন। সরেজমিন ঘুরে দেখা যায়, চরবাগডাঙ্গা ইউনিয়নের মালবাগডাঙ্গা মৌজার রোডপাড়া, কাঁইড়া পাড়া, চাক পাড়া ইতোমধ্যে পদ্মার ভাঙ্গনে বিলীন হয়ে গেছে। আরভাঙনের হুমকিতে রয়েছে ওই এলাকার ইউনিয়ন পরিষদ কমপ্লেক্স, ইউনিয়ন ভূমিঅফিস, হাটবাজার, বিজিবি ক্যাম্প, বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসহ অনেকস্থাপনা।

এ বিষয়ে চাকপাড়া গ্রামের মাইনুল ইসলাম ও রেজাউল ইসলাম জানান, তার ৭০বিঘার ফসলী জমি ও আমবাগান পদ্মায় বিলীন হয়েছে প্রায় দুই বছর। যেহেতু এইআম বাগানই ছিলো তার সারা বছরের আয় রোজগারের উৎস। তাই এখন তিনি পথেবসে গেছেন। এছাড়া, গত ২ বছরে এ ইউনিয়নের মালবাগডাঙ্গা মৌজার রোডপাড়া, কাঁইড়া পাড়া, চাক পাড়া পদ্মার ভাঙ্গনে বিলীন হয়ে গেছে। আর বর্তমানেহুমকির মুখে রয়েছে ৪ ও ৯ নং ওয়ার্ড।এনিয়ে বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী সৈয়দ শাহিদুলআলম জানান, এ বছরের বন্যায় ৪৮৫ মিটার গুরুত্বপূর্ণ এলাকায় ভাঙ্গন প্রতিরোধেবালু ভর্তি জিও ব্যাগ ফেলে ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। তবে পদ্মার ভাঙন ঠেকাতে ২৯০০মিটার এলাকা জুড়ে নদী তীর সংরক্ষন করতে হবে। আর এই কাজ বাস্তবায়নের লক্ষ্যে ২শত ৫৮ কোটি টাকার একটি প্রকল্প প্রস্তাবনা সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ে প্রেরণ করাহয়েছে। সেটি অনুমোদন পেলে দ্রুতই কাজ শুরু হবে।

এদিকে বাংলাদেশ পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সহকারি সচিব আবুইউসুফ মো. রাসেল ভাঙ্গন কবলিত এলাকা পরিদর্শন শেষে জানান, যেহেতু পানিউন্নয়ন বোর্ড চাঁপাইনবাবগঞ্জ শাখার পক্ষ থেকে এই এলাকার নদী তীর সংরক্ষণকল্পেএকটি প্রকল্প প্রস্তাব প্রেরণ করা হয়েছে সেহেতু ঢাকায় ফিরে গিয়ে সরকারের উচ্চপর্যায়ের সাথে আলোচনা স্বাপেক্ষে পদ্মার ভাঙ্গন রোধে জরুরী ভিত্তিতে কার্যকরব্যবস্থা নেয়া হবে। এই ব্যাপারে চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও সদরআসনের সংসদ সদস্য আব্দুল ওদুদ জানান, ২০০৮ সালে দল ক্ষমতায় আসার পর সদরউপজেলার সুন্দরপুর-চরবাগডাঙ্গা পর্যন্ত ১১ কি.মি নদীর বাঁধের কাজ সম্পন্ন করাহয়েছে।

আর পরিকল্পনার অভাবে ২ কি.মি. বাঁধের কাজ করতে না পারায় এ এলাকায়প্রচন্ড হারে ভাঙ্গন শুরু হয়েছে। ফলে এই ভাঙ্গন প্রতিরোধ করতে না পারলে পদ্মার বাম তীর সংরক্ষণ প্রকল্পের পুরোটায় ভেস্তে যাবে। তবে তার বিশ্বাস আগামী শুস্কমৌসুমে এ কাজ শুরু করা হলে পদ্মার ভাঙন প্রতিরোধ সম্ভব হবে এবং বাচাঁনোযাবে হাজারো পরিবার ও স্থাপনা।