২৫টি সাংস্কৃতিক সংগঠনের সমন্বয়ে নতুন সাংস্কৃতিক জোট ‘বাঙালি সাংস্কৃতিক বন্ধন’-এর আত্ম প্রকাশ ঘটেছে।

0
93

রাজধানীর ২৫টি সাংস্কৃতিক সংগঠনের সমন্বয়ে নতুন সাংস্কৃতিক জোট ‘বাঙালি সাংস্কৃতিক বন্ধন’-এর আত্ম প্রকাশ ঘটেছে।

আজ জাতীয় প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে এই জোট গঠনের ঘোষণা দেন নবগঠিত জোটের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা ও চিত্রনায়ক আকবর হোসেন পাঠান (চিত্রনায়ক ফারুক)। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে নায়ক ফারুক বলেন, মহান মুক্তিযুদ্ধে ত্রিশ লাখ বাঙালি শহীদ হয়েছেন। তাদের স্বপ্ন বাস্তবায়নে এই সংগঠন কাজ করবে। দেশ স্বাধীনের পরও স্বাধীনতাবিরোধী ঘাতকরা আমাদের স্বাধীনতা মেনে নেয়নি। তারা জাতির জনক বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত্যা করেছে। আজও এই খুনীরা দেশে হত্যাযজ্ঞ চালাচ্ছে। আমরা আর কোন বাঙালিকে হত্যা করতে দেব না।

তিনি বলেন, এই সাংস্কৃতিক জোট ভবিষ্যতে জাতির যে কোন দুর্যোগের মোকাবেলা করবে সংস্কৃতিকর্মের ভেতর দিয়ে। মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গঠনে কাজ করবো আমরা। আগামী নির্বাচনে এই সংগঠনের সকল সহযোগী প্রতিষ্ঠানের কর্মীরা ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করবে।

সংবাদ সম্মেলনে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন কবি কাজী রোজী এমপি, কবি মুহাম্মদ সামাদ, শিল্পী ইন্দ্রমোহন রাজবংশী, শিল্পী মনোরঞ্জন ঘোষাল, সঙ্গীতঙ্গ শেখ সাদী খান, নাট্যজন ড. ইনামুল হক, শিল্পী বুলবুল মহলানবিশ, বাউল শিল্পী শফি মন্ডল, চিত্রনায়ক জুনায়েদ। উপস্থিত ছিলেন নায়িকা রত্না, শাহনূর, অমৃতা, আর জে নয়নসহ শিল্প-সংস্কৃতি জগতের ব্যক্তিবর্গ।

বিভিন্ন প্রশ্নের জবাবে নায়ক ফারুক বলেন, এই জোটের সদস্য সব সংগঠন জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শে বিশ্বাসী এবং তাঁর স্বপ্নের বাংলাদেশকে একটি উন্নত বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠার জন্য কাজ করে যাবে। জোটের সাধারণ সম্পাদক সাইফুল আজম বাশার বলেন, এ জোট আগামী দিনের চলার পথে জাতীয় যে কোন ইস্যুতে সাবলিল গতিতে কাজ করে যাবে। কোন ক্রমেই স্বাধীনতাবিরোধীদের এ দেশে আমরা সহ্য করবো না। সংস্কৃতিকর্মের মধ্যদিয়ে মানবিক অসাম্প্রদায়িক সমাজ গড়ার কাজ আমরা করবো।

অভিনেতা ড. ইনামুল হক বলেন, আমরা শিল্প-সংস্কৃতি বান্ধব সরকার চাই। বর্তমানে ক্ষমতাসীন সরকার সংস্কৃতিবান্ধব। আগামী নির্বাচনে আমরা ক্ষমতাসীনদের পাশেই থাববো। নতুন জোটের সভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন নায়ক ফারুক ও সাধারণ সম্পাদক সাইফুল আজম বাশার। জোটে যোগ দেয়া সংগঠনগুলো হচ্ছে বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট, আওয়ামী শিল্পী গোষ্ঠী, বাংলার মুখ, আওয়ামী সাংস্কৃতিক ফোরাম, আওয়ামী সাংস্কৃতিক জোট, বাংলাদেশ লোক সাংস্কৃতিক পরিষদ, সংগীত সংগঠন সমন্বয় পরিষদ, স্বাধীনতা চারুশিল্পী সংসদ, বঙ্গবন্ধু লেখক পরিষদ, বঙ্গবন্ধু আবৃত্তি পরিষদ, শিল্পী কলাকুশলী সমিতি, ভাওয়াইয়া অঙ্গন, বাংলাদেশ ললিতকলা পরিষদ, বাংলাদেশ রোদসী কৃষ্টি সংসার, প্রতিভা মূল্যায়ন পরিষদ, স্বাধীনতা সাংস্কৃতিক একাডেমি, বঙ্গমাতা পরিষদসহ পঁচিশটি সংগঠন।