শেরপুরে এস এস সি পরীক্ষার্থীর আত্মহত্যা

0
100

সুখন, শেরপুরঃ শেরপুরের নকলা উপজেলার চন্দ্রকোনা ইউনিয়নের বাছুরআলগা দক্ষিণ কনিয়াপাড়ায় আয়শা আক্তার আশা (১৮) নামের এসএসসি পরীক্ষার্থী গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করার ঘটনা ঘটেছে। সে ওই এলাকার আশরাফ আলী ও রেহেনা বেগমের ২ ছেলে ও ৩ মেয়ের মধ্যে দ্বিতীয় সন্তান এবং চন্দ্রকোনা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্রী ছিল। ঘটনাটি সোমবার সন্ধ্যায় ঘটে।

নকলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কাজী শাহ নেওয়াজ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান যে, আশার মরদেহ ময়না তদন্তের জন্য শেরপুর জেলা হাসপাতালের মর্গে প্রেরন করা হয়েছে। প্রাথমিক ভাবে বিষয়টি আত্মহত্যা মনে হওয়ায় থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের করা হয়েছে বলে তিনি জানান। মৃতের পরিবার সূত্রে জানা গেছে, আশা ২০১৯ সালের এসএসসি পরীক্ষা দেওয়ার জন্য নির্বাচনী পরীক্ষা দিয়ে পাশ করেছিল।

কিন্তু অজ্ঞাত কারনে আশার এসএসসি পরীক্ষা দেওয়ার আশা পূরণ হলোনা। তারা জানান, সে প্রতিদিনের ন্যায় স্কুল থেকে বাড়ি ফিরে খাবার খেয়ে ঘুরতে বেড় হয়। তার মা রান্নার কাজে ব্যস্ত থাকার সুযোগে সে সবার অজান্তে তার চাচা লিটনের বসত ঘরের আড়ার (ধন্নার) সাথে গলায় শাড়ী পেচিয়ে আত্মহত্যা করে। লিটন অন্যের বাড়ি থেকে কাজ শেষে সন্ধ্যায় ঘরের তালা খোলে আশাকে ঝুলতে দেখে চিৎকার শুরু করেন। তার ডাক চিৎকারে এলাকার লোকজন এসে চন্দ্রকোনা পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশে খবর দেয়।

পুলিশ খবর পেয়ে রাত সাড়ে সাতটায় আশার মরদেহ উদ্ধার করে চন্দ্রকোনা পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রে নিয়ে যায়। এলাকাবাসী জানায়, অন্যের বাড়িতে কাজে থাকায় দিনের বেলায় লিটনের ঘরে কেউ থাকে না। এই সুযোগে আশা তার চাচা লিটনের ঘরের পিছনের জানালা দিয়ে ডুক আত্মহত্যা করে। তবে আত্মহত্যার কারন জানা যায়নি। আশার অজ্ঞাত কারনে মৃত্যুতে পরিবার, এলাকা ও স্কুলে বইছে শোকের মাতম।