গোপালগঞ্জে আরিফ খুনের মামলায় আটক-৩

0
63

সাইফুল ইসলাম, গোপালগঞ্জ প্রতিনিধিঃ   গোপালগঞ্জের কাশিয়ানী উপজেলার ঘোনাপাড়া গ্ৰামে শশুর বাড়ীতে খুন হওয়া কাজী আরিফ (৪২) এর মৃত্যুর রহস্য উদঘাটন।

বুধবার সকাল সাড়ে এগারোটায় কাশিয়ানী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আজিজুর রহমান এক প্রেস ব্রিফিংয়ে জানান, পারিবারিক কলহের জেরে ৪ নভেম্বর দিবাগত রাতে কাজী আরিফের স্ত্রী ফারজানা ইসলাম কেয়া পরিকল্পিত ভাবে ভাড়াটিয়া তিন সন্ত্রাসী (১) রায়হান, (২) ইমন, (৩) তন্ময় এর সহায়তায় তার স্বামী আরিফকে খুন করা করে। ৫ নভেম্বর দিবাগত রাতে সহকারী পুলিশ সুপার হুসাইন মুহাম্মদ রায়হান ও ওসি আজিজুর রহমানের একটি টিম তন্ময় (২২) নামে এক ভাড়াটিয়া খুনিকে খুলনার দিয়ানা থেকে গ্ৰেপ্তার করে। নয় জনকে আসামি করে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। তিন জন পুলিশের হেফাজতে আছে। তাদেরকে দুপুরে আদালতে প্রেরণ করা হবে।

উল্লেখ্য, গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার গেটপাড়ার মৃত মজিবর কাজীর ছেলে কাজী আরিফ(৪২) ঘোনাপাড়া গ্ৰামের সহকারী অধ্যাপক এবাদুল মুন্সির মেয়ে ফারজানা ইসলাম কেয়া (২৮)। গত দশ বছর আগে এরা বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়। পারিবারিক জীবনে প্রথম দিকে ভালোই কাটছিলো তাদের জীবন।
৫ নভেম্বর সকালে উপজেলার ঘোনাপাড়া শ্বশুর বাড়ি থেকে কাজী আরিফের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

সহকারী পুলিশ সুপার হোসাইন মোহাম্মদ রায়হান ও কাশিয়ানী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ আজিজুর রহমান ঘটনার প্রাথমিক তদন্ত করে সাংবাদিকদের জানান, রোববার রাতের কোনো এক সময় কাজী আরিফকে পিটিয়ে হত্যা করা হয়। নিহতের শরীরে অনেক আঘাতের চিহ্ন পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তাঁর স্ত্রী কেয়া ও শ্বশুর এবাদুল ইসলামকে আটক করে থানায় নিয়ে যাওয়া হচ্ছে।