আমি নির্বাচন করব না : সাকিব আল হাসান

0
61

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের টি-টোয়েন্টি ও টেস্ট অধিনায়ক সাকিব আল হাসান নির্বাচন না করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। শনিবার রাতে তিনি বলেন, ‘আমি সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করেছি। নির্বাচন করব না।’

আগে নির্বাচন করার কথা জানিয়ে এখন কেন সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করলেন এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি কোনো মন্তব্য করেননি। রোববার তার দলীয় মনোনয়নপত্র কেনার কথা ছিল।

এর আগে সাকিব নিজেই বলেছিলেন, তিনি মাগুরা-১ আসনের জন্য তার মনোনয়নপত্র জমা দেবেন। এছাড়া শনিবার দুপুরে আওয়ামী লীগের দফতর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া জানিয়েছিলেন আওয়ামী লীগ থেকে নির্বাচন করার লক্ষে আগামীকাল মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করবেন সাকিব আল হাসান।

বিপ্লব বড়ুয়া জানান, সাকিব আল হাসান রোববার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে মনোনয়ন ফরম কিনতে ধানমণ্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির কার্যালয়ে আসবেন বলে জানিয়েছেন। সাকিব আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরকে ফোন করে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করার বিষয়টি জানিয়েছেন।

মাগুরার এ কৃতি সন্তান বাংলাদেশের ক্রিকেটকে এক অনন্য উচ্চতায় নিয়ে গেছেন। বিশ্বসেরা এই অলরাউন্ডারের ধারাবাহিক পারফরমেন্সে বাংলাদেশ বহু ম্যাচ জিতেছে।

সাকিব আল হাসানের রাজনীতিতে আসার গুঞ্জন বহুদিনের। কিছুদিন আগে এক সংবাদ সম্মেলনে পরিকল্পনামন্ত্রী মুস্তফা কামাল জানিয়েছিলেন যে, সাকিব ও মাশরাফি আওয়ামী লীগ থেকে নির্বাচন করবেন।

সাকিবের নির্বাচনে অংশ নেয়ার বিষয়ে জানতে চাইলে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) মিডিয়া কমিটির চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস যুগান্তরকে বলেন, ওয়ানডে অধিনায়ক মাশরাফির মনোনয়ন কেনার বিষয়টি শুনেছি। কিন্ত সাকিবের বিষয়টি আমার জানা নেই।

প্রসঙ্গত, জাতীয় ক্রিকেট দলের ওয়ানডে অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজাও আওয়ামী লীগ থেকে নির্বাচন করতে চাইছেন। তিনি নড়াইল থেকে নির্বাচন করতে রোববার ধানমণ্ডিতে আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করতে যাবেন।