বাবা আমারে কয়টা ভাত দেন

0
134

মোঃ রুহুল আমিন

বাবা কয়টা ভাত দেন! বাবা কয়টা ভাত দেন!! এই কথাগুলো অামার কানে লাগছিল। তবে অাশেপাশে কাউকে খুঁজে পাচ্ছি না। এদিক ওদিক তাকাচ্ছি কোন মানুষ নাই শুধু অামি ছাড়া।
তাহলে এই শব্দ কোথার অাসছে??

অামি একটু সামনে গেলাম, কিন্তু না, কেউ নেই।আবার অাগের জায়গায় অাসলাম। সেই একই শব্দ। অামার পাশে একটা গাড়ির নিচ দিয়ে তাকালাম। চুল গুলো সাদা, বয়সের ভারটা বেশি। গায়ে একটা চাদর জড়নো এক বৃদ্ধা মহিলা। সে একই ভাবে বলছে বাবা কয়টা ভাত দেন?

তবে তার অবস্থা দেখে বোঝা গেলো সে চোখে দেখে না। কারন সে যা খানে বসে ভাত চাইছে সে খানে কোন মানুষ নেই। অামি তার মাথায় হাত দিয়ে জিজ্ঞেস করলাম, ভাত খাবেন? সে চোখের পানি ছেড়ে দিয়ে বললো হ বাবা খামু, কয়টা ভাত দিবেন?

অামি অাশে পাশে খাবার দোকান খুজালাম, অনেক দূরে একটা খাবার হোটেল, অামি তাকে বসিয়ে রেখে খাবার নিয়ে অাসলাম। তার হাতে খাবার দিলাম  তবে সে যে ভাত মেখে খাবে তার সেই শক্তিটুকু নাই। অামি তাকে খাইয়ে দিলাম। অাপনার বাসা কোথায়? ঐ খানে একটা বস্তি অাছে, সে খানে থাকি। অামি তাকে ধরে নিয়ে গেলাম তার বস্তিতে। ছোট্ট একটা ঘর। স্বামী সন্তান বলতে কেউ নাই!! মঝে মধ্যে বস্তির লোক গুলো খাবার দেয়। অার যখন খাবার দেয় না তখন অন্ধ চোখ সাথে একটা লাঠি নিয়ে হাত পাতে সবার কাছে।

একজন মানুষ কতটা কষ্টে জীবন যাপন করে উনাকে না দেখলে বোঝা যেতো না। অামরা চাইলে সবাই পাড়ি এদের মুখে খাবার তুলে দিতে।