ঝিনাইদহে গ্রাম-বাংলার ঐতিহ্যবাহী লাঠিখেলা অনুষ্ঠিত

0
127

আব্দুল্লাহ আল মামুন, ঝিনাইদহ জেলা প্রতিনিধি॥

আবহমান বাংলার অন্যতম জনপ্রিয় অনুষঙ্গ লাঠি খেলা। তবে সময়ের সঙ্গে সঙ্গে হারাতে বসেছে বাংলার অন্যতম ঐতিহ্যবাহী এ খেলা। একই সঙ্গে হুমকির মুখে পড়েছে এই খেলার সঙ্গে সংশ্লিষ্টদের জীবন-জীবিকাও। তারপরও অনেককেই এখনও দেখা যায় খেলাটি খেলতে। নবান্ন উৎসব উপলক্ষে ঝিনাইদহের জেলা প্রশাসনের সহযোগিতায় ঘোড়শাল ইউনিয়নের চেয়ারম্যানের আয়োজনে সদর উপজেলার মুনুড়িয়া স্কুল মাঠে বসেছিল লাঠিখেলার এ আসর।

আবহমান গ্রাম বাংলার অন্যতম জনপ্রিয় লাঠি খেলা। বর্তমানে আধুনিক প্রযুক্তির ব্যবহারে মানুষ এখন ভুলতে বসেছে এক সময়ের জনপ্রিয় এই খেলাটি। এ খেলাটি সত্যি মনমুগ্ধকর। প্রচন্ড ভিড় উপেক্ষা করে লাঠিখেলা উপভোগ করেন সাধারণ মানুষ। বর্ণিল সাজে লাঠি হাতে লাঠিয়ালরা অংশ নেন এ খেলায়। ঢাকঢোল আর বাঁশির তালে আনন্দে উল¬াসে মেতে ওঠেন সবাই। শিশু-কিশোর থেকে শুরু করে নানা বয়সের মানুষ রং-বেরঙের পোশাক পরে মাঠে নামেন লাঠি খেলতে। মানুষের এ উচ্ছাস প্রমাণ করে লাঠি খেলা নিয়ে মানুষের আগ্রহ আছে।

দর্শকদের হাততালিতে উৎসবমুখর হয়ে ওঠে পুরো এলাকা। বর্তমান যুব সমাজকে অপরাধের হাত থেকে দুরে রাখতে এ ধরনের আয়োজন চান দর্শকরা।

দর্শক ও খেলোয়াড় আর হারানো ঐতিহ্যকে ফিরিয়ে আনতেই লাঠিখেলার এমন আয়োজন বলে জানান আয়োজকরা। সরকারি পৃষ্টপোষকতা পেলে বাংলার গ্রামীণ ঐহিত্যবাহী এ লাঠি খেলা বর্তমান প্রজন্মের মাঝে তুলে ধরা সম্ভব এমনটিই মনে করেন সচেতন মহল।