কুমিল্লায় রিটার্নিং কর্মকর্তার বিরুদ্ধে গুরুতর অভিযোগ

0
73

কুমিল্লা-৩ (মুরাদনগর) আসনে বিএনপি প্রার্থী কে এম মুজিবুল হক জেলা প্রশাসক ও রিটার্নিং কর্মকর্তার বিরুদ্ধে গুরুতর অভিযোগ তুলেছেন। মুজিবুল হকের দাবি, তার ফাইল থেকে আয়কর রিটার্নের নথি গায়েব করে তার মনোনয়ন ফরম বাতিল করা হয়েছে।
২ ডিসেম্বর, রবিবার দুপুরে জেলা প্রশাসক ও রিটার্নিং কর্মকর্তা আবুল ফজল মীর তার মনোনয়নপত্র বাতিলের পর সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে মুজিবুল হক এ অভিযোগ করেন।
মুজিবুল হক তার আয়কর রিটার্ন জমা দেননি, এমন অভিযোগে মুজিবুল হকের মনোনয়পত্র বাতিল করা হয় বলে জানা গেছে।
এ প্রসঙ্গে মুজিবুল হক বলেন, ‘গত রাতে আমি ১২টার সময় খবর পেলাম ডিসি সাহেবের বাংলোতে আমাদের দুই তিনটা নমিনেশন পেপার নিয়ে সিরিয়াসলি মিটিং হচ্ছে। কারণ আমরা মুরাদনগরে আওয়ামী লীগের প্রতিদ্বন্দ্বি যিনি আছেন, ওনার সঙ্গে কম্পিটিশন করতে হলে এলাকার লোকজন ও উনিও নিজে মনে করেন মুজিবুল হক হবে আসলে ভোটের প্রতিদ্বন্দ্বি।’
‘আমাদের কাছে রেকর্ড আছে, আমি যখন মনোনয়নপত্র জমা দিলাম, তখন কিন্তু ওনারা রিসিভ করে নিয়েছেন, সব কিছু পেয়েছেন, এটা আছে, ওটা আছে…. সব ইয়েস করে গেছে। আজকে সকালে গত রাতের মিটিংয়ের সাথে মিলে গেল। কারণ ডিসি সাহেব, রিটার্নিং অফিসার বলছে, আমার আইটিটেনবি (আয়কর রিটার্ন) নাই। কিন্তু আমার যে কপি, আমার কপিতে ঠিকই আছে। ওনার কপিতে নাই। উনি বলছে এটা বাতিল। আমি ওনাকে বলছি, সবার সামনে, আপনাদের (সাংবাদিক) সামনে, যে এটা (আয়করের সার্টিফিকেট) আপনারা সরিয়ে ফেলেছেন। এটা আমি আপিল করব, কারণ এটার জন্য আপনি বাতিল করতে পারেন না। কারণ আমার সব কিছুই এটার ভেতরে আছে।’