কমলগঞ্জে বিধবা লেইমা দেবীকে দাদনের টাকার জন্য ব্যবসায়ী সুর্নিমল সিংহে ধারা নির্যাতিত।

0
245

নকুল দেব নাথ নানটু , মৌলভীবাজারঃ  মৌলভীবাজার জেলার কমলগঞ্জ উপজেলার আদমপুর ইউনিয়নের হোমেরজান গ্রামের বিধবা অসহায় লেইমা দেবী নামে এক মহিলাকে দাদনের টাকার জন্য নির্যাতনের অভিযোগ পাওয়া গেছে। নির্যাতনকারী দাদন ব্যবসায়ী একই গ্রামের  মৃত  তমবাবু সিংহের ছেলে সুর্নিমল সিংহ। গত সোমবার (১৮ জুন) সকালে আদমপুর ইউনিয়নের হোমেরজান গ্রামে এ ঘটনা ঘটে পরে নির্যাতিত লেইমা দেবীকে কমলগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। একই গ্রামের এস কে সুমেন বলেন, আদমপুর ইউনিয়নের হোমেরজান গ্রামের লেইমা দেবীর স্বামী অনেক আগে মারা যান। কোন ছেলে সন্তান নেই। তিন মেয়ে এবং সবার বিয়ে দিয়েছেন। তিনি মানুষের বাড়িতে কাজ করে সংসার চালান। তিনি আরো বলেন, লেইমা দেবীর ছোট মেয়ে অঞ্জলী দেবী, কিছুদিন আগে দাদন ব্যবসায়ী সুর্নিমল সিংহের কাছে থেকে ৪০ হাজার টাকা ধার আনলে গত সোমবার সকালে সুর্নিমল সিংহ তাদের বাড়িতে এসে ধার আনা ৪০ হাজার টাকার দাদনসহ দুইলক্ষ টাকা পরিশোধের জন্য বলেন, লেইমা দেবী টাকা পরিশোধ করতে পারবেন না বলে জানালে তাকে চুল ধরে ঘর থেকে বের করে বাড়ির উঠানে ফেলে লাথি, কিল ঘুষি মেরে নির্যাতন করে। এই নির্যাতনকারী দাদন ব্যবসায়ী সুর্নিমল সিংহের বিরুদ্ধে আইনের যথাযথ প্রয়োগ দেখতে চাই বলে এ সংবাদদাতাকে জানায়। মেয়ে সুমি দেবী জানান, গত সোমবার সকালে দাদন ব্যবসায়ী সুর্নিমল সিংহ বাড়িতে এসে টাকা পরিশোধের জন্য বললে, মা লেইমা দেবী টাকা পরিশোধ করতে পারবেন না বলে জানালে মাকে নির্যাতন করে। পরে কমলগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করান। গতকাল বুধবার উন্নত চিকিৎসার জন্য শ্রীমঙ্গলে নেওয়া হয়। আরো কয়েকবার তার মা লেইমা দেবীকে সুর্নিমল সিংহ মারধোর করে। এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিকে জানালেও কোন বিচার পাননি তারা। তাই মেয়ে সুমি দেবী বলেন, এই নির্যাতনকারী দাদন ব্যবসায়ী সুর্নিমল সিংহের বিরুদ্ধে আইনের যথাযথ প্রয়োগ দেখতে চাই।
দাদন ব্যবসায়ী সুর্নিমল সিংহের সাথে যোগাযোগ করার চেষ্টা করলে মুঠোফোন (০১৭৮৬২৫০০৫১) বন্ধ পাওয়া যায়।