জার্মানিতে বাংলাদেশী ব্লগারের মৃত্যু

0
104

জার্মানির রাজধানী বার্লিনে বাংলাদেশি এক ব্লগারের (২৩) রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে।

১৮ ডিসেম্বর, মঙ্গলবার গেসুন্ড ব্রুনেন এলাকায় নিজ কক্ষ থেকে দেশটির পুলিশ ওই বাংলাদেশি তরুণীর লাশ উদ্ধার করেছে। ওই তরুণীর নাম তমালিকা সিংহ, তবে তিনি অর্পিতা রায় চৌধুরী নামে লেখালিখি করতেন। অর্পিতা নেত্রকোনার মেয়ে বলে জানা গেছে।

২০১৭ সালের ডিসেম্বরে লেখকদের সংগঠন ‘পেন জার্মানির’ উদ্যোগে নির্বাসিত লেখকদের জন্য দেওয়া বৃত্তি কর্মসূচির আওতায় তিনি জার্মানিতে যান। তিনি ব্লগার হিসেবে স্থানীয় বাঙালি কমিউনিটিতে পরিচিত ছিলেন।

জার্মানির সংবাদমাধ্যম ডয়েচে ভেলের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, মঙ্গলবার রাতে ওই তরুণীর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। নিজের আবসস্থলের স্নানঘর থেকে তার নিথর দেহ উদ্ধার করা হয়। সেখানে উপস্থিত একজন চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

মৃতের পরিবার চাইলে ওই তরুণীর মরদেহ দেশে নেওয়ার ব্যাপারে সহায়তার আশ্বাসও দিয়েছে বাংলাদেশের দূতাবাস।

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, পেন জার্মানিও ব্লগারের মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেছে। তবে ঠিক কী কারণে তার মৃত্যু হয়েছে সে সম্পর্কে কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি পেন জার্মানির মুখপাত্র ফিলিক্স হিলে।

ফিলিক্স বলেন, ‘এ ঘটনায় তারা অত্যন্ত মর্মাহত এবং বিমর্ষ।’

পেন ক্লাবে অর্পিতার প্রোফাইল থেকে জানা গেছে, ১৯৯৫ সালে জন্মগ্রহণ করেন অর্পিতা রায় চৌধুরী। নারী, শিশু ও সংখ্যালঘুদের বৈষম্য নিয়ে ২০১২ সালে তিনি ফেসবুকে বাংলায় ব্লগ লিখা শুরু করেন। এ নিয়ে অনেকবার তার অ্যাকাউন্ট ব্লক করে দেওয়ায় তিনি ছদ্মনামে লিখার সিদ্ধান্ত নেন।

২০১৪ সালে বাংলাদেশের ইংরেজি দৈনিক নিউ এজের নবযুগে ব্লগ লিখার ক্ষেত্রে অগ্রণী ভূমিকা পালন করেন অর্পিতা। নারীবাদী, ধর্মনিরপেক্ষ ব্লগার হিসেবে বাংলাদেশে তাকে জনসম্মুখে হয়রানি, দুর্ব্যবহার ও হুমকির শিকার হতে হয়েছে।