শীতে কাঁপছে দিনাজপুর!

0
29

 

হিমালয়ের পাদদেশে অবস্থিত উত্তরের জেলা দিনাজপুরে শীতের প্রকোপে নাকাল হয়ে পড়েছে জনজীবন। মৃদু শৈত্য প্রবাহ আর হিমেল হাওয়ায় তাপমাত্রা নেমে এসেছে ১০ ডিগ্রি সেলসিয়াসে। বাতাসের আদ্রতা ৯৭ শতাংশ। আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে, দু’একদিনের মধ্যে দিনাজপুরের উপর দিয়ে মাঝারি শৈত্য প্রবাহ বয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।এতে তাপমাত্রা নেমে আসবে ৬ডিগ্রী সেলসিয়াসে।

হঠাৎ জেঁকে বসা শীতে চরম বিপাকে পড়েছে সাধারণ মানুষ। ঘন কুয়াশা আর হিমেল হাওয়ায় শীতে দিন-মুজুর ও খেটে খাওয়া মানুষ নাকাল হয়ে পড়েছে। কুয়াশার চাদর ভেদ করে সূর্য উদিত হলেও কমছেনা শীতের প্রকোপ। শীতবস্ত্রের অভাবে শীতের প্রকোপ থেকে মুক্তি পেতে অনেকে কুড়কুটো জ্বালিয়ে শীত নিবারণের চেষ্টা চালাচ্ছে।

দু’দিন থেকে ঘন কুয়াশা আর কনকনে শীতে কাঁপছে উত্তরের জনপদ। শীতে সবচেয়ে বেশী দূর্ভোগে পড়েছে শিশু ও বয়স্ক মানুষ।ঠান্ডাজনিত নানা রোগে আক্রান্ত হচ্ছে তারা। হাসপাতালে বেড়ে চলেছে শিশু ও বয়স্ক রোগী সংখ্যা। হঠাৎ শীতে শ্রমজীবি মানষের বেড়েছে চরম দূর্দশা। ঠান্ডার কারণে ঘরের বাইরে বের হতে পারছেন না তারা । হতদরিদ্র-ছিন্নমূল মানুষ শীতবস্ত্রের অভাবে অনেকেই খড়-কুটো জ্বালিয়ে শীত নিবারণের চেষ্টা চালাচ্ছেন। ঘন কুয়াশার কারণে দিনের বেলাতেও রাস্তায় যানবাহন চালাতে হচ্ছে হেড লাইট জ্বালিয়ে।

দিনাজপুর আবহাওয়া অফিসের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা তোফাজ্জল হোসেন জানিয়েছেন, দু’একদিনের মধ্যে দিনাজপুরের উপর দিয়ে মাঝারি শৈত্য প্রবাহ বয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।এতে তাপমাত্রা নেমে আসবে ৬ডিগ্রী সেলসিয়াসে।

এদিকে সরকারিভাবে জেলা, উপজেলা প্রশাসন,বিজিবি, ট্রাই ফাউন্ডেশন,চ্যানেল আই দর্শক ফোরামসহ বিভিন্ন শিল্প প্রতিষ্ঠান, ব্যাংক, বীমা ও সামাজিক সংগঠনের পক্ষ থেকে কিছু কিছু এলাকায় গরম কাপড় বিতরণ করলেও প্রয়োজনের তুলনায় তা অপ্রতুল।

জেলা ত্রান ও পুনর্বাসন অফিস সুত্রে জানা গেছে, শীতবস্ত্রের চাহিদা অনুযায়ী সংশ্লিষ্ট মন্ত্রনালয়ে পত্র প্রেরন করা হয়েছে। এসব শীতবস্ত্র আসলেই তা বিতরন করা হবে বলে জানিয়েছে,সংশ্লিষ্ট বিভাগ।