শাহজাদপুরে গভীর রাতে শীতার্তদের দরজায় কম্বল নিয়ে হাজির ওসি

0
14

 

প্রচন্ড কুয়াশা এবং তীব্র শীতে দরিদ্র জনগোষ্ঠীর শিশু এবং বৃদ্ধদের দুর্দশা যখন চরমে তখনই শীতের চাদর ভেদকরে আলোকবর্তিকা হয়ে শীতবস্ত্র নিয়ে দরজায় উপস্থিত হলেন সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুর থানার ওসি মোঃ আতাউর রহমান। শাহজাদপুর উপজেলায় কর্মরত কিছু সাংবাদিকের উদ্দোগে শীতার্তদের মাঝে তিনি এই কম্বল বিতরণে অংশ নেন।

 

তীব্র শীত উপেক্ষা করে গভীর রাতে তিনি উপজেলার পারকোলার গুচ্ছগ্রামে কম্বল বিতরণে অংশ নেন। তিনি নিজ হাতে গুচ্ছ গ্রামের প্রায় ৫০টি দরিদ্র পরিবারের বয়স্ক মানুষগুলোর গায়ে কম্বল জড়িয়ে দেন। গুচ্ছ গ্রামের বয়সের ভারে নুজ্য এসকল বৃদ্ধ মানুষগুলো এই তীব্র শীতে কম্বল হাতে পেয়ে সবাই আনন্দ প্রকাশ করেন। এবং ওসির মাথায় হাত বুলিয়ে দোয়া করেন। এই কম্বল বিতরণে থানার পুলিশের আরো ছিলেন মোঃ সহিদুল ইসলাম (পরিদর্শক তদন্ত), মোঃ আসলাম হোসেন (পরিদর্শক- কমিউনিটি পুলিশিং) এস আই গোলজার হোসেন, এসআই বিরঙ্গ চন্দ্র মন্ডল, কনস্টেবল গোলাপ হোসেন।

 

এসময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন কম্বল বিতরণ কার্যক্রমের উদ্দোক্তা দৈনিক দিনকাল পত্রিকার প্রতিনিধি ও শাজাদপুর প্রেসক্লাবের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আল আমিন হোসেন, শাহজাদপুর প্রেসক্লাবের সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক এবং দৈনিক আমার সংবাদ প্রতিনিধি জহুরুল ইসলাম, সময়ের কণ্ঠস্বর প্রতিনিধি রাজিব আহমেদ রাসেল, আজকালের খবর প্রতিনিধি মাসুদ মোশাররফ, ঢাকা প্রতিদিন প্রতিনিধি জাকারিয়া মাহমুদ, বাংলাদেশের আলো প্রতিনিধি আবুল হাসনাত টিটো, ও বিশিষ্ট ব্যবসায়ী অরূপ আহমেদ প্রমুখ।

 

কম্বল বিতরণ শেষে শাহজাদপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আতাউর রহমান তার প্রতিক্রিয়ায় বলেন, শাহজাদপুরের সাংবাদিকদের শীতার্তদের মাঝে কম্বল বিতরণের এই উদ্যোগ মহতী এবং প্রসংসার দাবি রাখে। তাদের সাথে আমি এই অসহায় মানুষগুলোর হাতে শীতবস্ত্র তুলে দিতে পেরে অনেক আনন্দিত অনুভব করছি। পরবর্তীতে অসহায় মানুষদের নিয়ে যেকোনো কার্যক্রমে আমি তাদের সাথে অংশগ্রহন করবো।

 

উল্লেখ্য শাহজাদপুরে কর্মরত এসকল সাংবাদিক উদ্যোগ নিয়ে গত ২৩ ডিসেম্বর থেকে শুরু করে সন্ধ্যা থেকে গভীর রাত পর্যন্ত শাহজাদপুর পৌর শহরসহ বিভিন্ন  রাস্তাঘাটে থাকা ভাসমান মানুষের মাঝে এবং বিভিন্ন গ্রামে খুঁজে খুঁজে প্রকৃত অসহায় মানুষদের মধ্যে এ কম্বল বিতরন করে আসছে। তাদের নিজেদের অর্থায়ন ও কিছু মানুষের সহযোগিতায় কয়েক ধাপে এই কম্বল বিতরণ করা হচ্ছে।

 

উপস্থিত সাংবাদিকরা বলেন, সমাজের ছিন্নমূল অসহায় মানুষদের সহযোগিতার জন্য বিবেকবান সচ্ছল মানুষেরা যার যার অবস্থান থোকে এগিয়ে আসলে এদের দূর্দশা কিছুটা হলেও লাঘব হবে। হতাশার অন্ধকারে ডুবে যাওয়া  অসহায় মানুষগুলো খুঁজে পাবে বাঁচার স্বপ্ন। আর এর জন্য কেবল লোক দেখানো আনুষ্ঠানিকতা নয়, প্রকৃত অসহায় মানুষদের খুঁজে বের করে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিতে হবে।