ক্যাসিনোকাণ্ডে দুই ভাই এনামুল-রূপম রিমান্ডে

0
8

 

ক্যাসিনোবিরোধী অভিযানের সময় এর হোতা হিসেবে আলোচনায় আসা রাজধানীর গেন্ডারিয়া থানা আওয়ামী লীগ নেতা দুই ভাই এনামুল হক ও রূপম ভূঁইয়াকে চার দিন করে রিমান্ড দিয়েছেন আদালত। মঙ্গলবার (১৪ জানুয়ারি) মানি লন্ডারিংয়ের পৃথক দুই মামলায় ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট রাজেশ চৌধুরী তাদের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

 

এদিন সূত্রাপুর থানার মানি লন্ডারিং মামলায় তদন্ত কর্মকর্তা রুপনকে ১০ দিনের রিমান্ডের আবেদন করে আদালতে হাজির করেন। অন্যদিকে গেন্ডারিয়া থানার মানি লন্ডারিং মামলায় এনামুল হক ও তার সহযোগী সানি মোস্তাফার ১০ দিনের রিমান্ডের আবেদন করে আদালতে হাজির করে সিআইডি পুলিশ। উভয় মামলার শুনানি শেষে বিচারক এ আদেশ দেন।

 

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী ঢাকা মহানগর পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) আব্দুল্লাহ আবু বলেন, মানি লন্ডারিংয়ের অভিযোগে দুই মামলায় তিন আসামির বিরুদ্ধে ১০ দিন করে রিমান্ড আবেদন করেন সিআইডির তদন্ত কর্মকর্তা। অপরদিকে, রিমান্ড বাতিল চেয়ে আসামিপক্ষের আইনজীবীরা তাদের পক্ষে জামিন আবেদন করেন। এরপর শুনানি শেষে এনামুল ও রূপমের চার দিন করে এবং শেখ সানির তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করা হয়েছে।

 

এনামুল হক গেন্ডারিয়া থানা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি এবং রূপম একই কমিটির যুগ্ম সম্পাদক বলে স্থানীয় নেতারা জানিয়েছেন।

 

সোমবার সকালে রাজধানীতে পৃথক অভিযান চালিয়ে এই দুই ভাইকে গ্রেফতার করে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)। এর আগে গত বছর ক্যাসিনোবিরোধী অভিযান শুরু হওয়ার পর এই দুই ভাই আলোচনায় আসেন। তবে শুরু থেকেই তারা পলাতক ছিলেন।

 

উল্লেখ্য সম্প্রতি দলীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সভায় ছাত্রলীগ ও যুবলীগের বেশকিছু নেতার কর্মকাণ্ড নিয়ে প্রকাশ্যে উষ্মা প্রকাশ করেন আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশের পরপরই ২০১৯ সালের ১৪ সেপ্টেম্বর রাতে ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের পদে রদবদল আসে।

 

এর তিন দিন পর গত ১৮ সেপ্টেম্বর মতিঝিলের ক্লাবপাড়ায় ক্যাসিনোবিরোধী অভিযান শুরু করে র‌্যাব। এরপর ধানমন্ডি, কলাবাগানসহ উত্তরা, গুলশান, তেজগাঁওয়ের বেশকিছু ক্লাবে একই ধরনের অভিযান চালায় পুলিশ ও র‌্যাব। এসব অভিযানে ক্যাসিনো সামগ্রীসহ প্রচুর পরিমাণে মদ ও অবৈধ অর্থ উদ্ধার করা হয়। অভিযানগুলোতে যুবলীগের কয়েকজন নেতাসহ বেশকিছু ক্লাবের সংগঠককে ক্যাসিনোতে সম্পৃক্ত থাকার অভিযোগে গ্রেফতার করা হয়।