ধামইরহাটে একই রাতে সরকারি সাত অফিসে চুরি

0
14

আশরাফুল নয়ন নওগাঁ:নওগাঁর ধামইরহাটে একই রাতে সরকারি সাত অফিসে চুরির ঘটনা ঘটেছে। ঘটনায় থানায় অভিযোগ হয়েছে। মঙ্গলবার দিবাগত রাতে এ চুরির ঘটনা ঘটে। তবে রাতে নাইট গার্ড থাকার পর কেন চুরির ঘটনা ঘটেছে বিষয়টি নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে।

জানা গেছে, মঙ্গলবার স্ব স্ব অফিসে কাজ শেষ করে অফিস বন্ধ করে কর্মকর্তারা বাসায় চলে যান। রাতের কোন এক সময় চোরেরা উপজেলা চত্বওে অবস্থিত উপজেলা ভ‚মি অফিসের গ্রীল, হিসাবরক্ষন অফিসের কেচি গেইটের তালা, মৎস্য অফিসের দরজার হেজবোল্ট কেটে, প্রাথমিক শিক্ষা অফিসে পূব পাশের জানালার গ্রীল কেটে, উপজেলা পল্লী উন্নয় কর্মকর্তা কার্যালয়ের দরজার তিনটি হেজবোল্ট কেটে এবং আনসার ও ভিডিপি উন্নয় ব্যাংকের দরজার কড়া ভেঙে কাগজপত্র তছনছ ও চুরির ঘটনা ঘটে। উপজেলা ভ‚মি অফিসের আলমিরা ভেঙে ১০ হাজার ৫শ টাকা ও মৎস্য অফিসের ফাইল কেবিনেট ভেঙে ৩৫ হাজার টাকা চুরি হয়।
সকালে কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা অফিসে এসে চুরি হওয়ার বিষয়টি বুঝতে পারেন। পরে উপজেলা নির্বাহী অফিষার ও থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

ধামইরহাট উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) গণপতি রায় বলেন, এতো নিরাপত্তার মধ্যদিয়ে চুরির ঘটনা ঘটায় দুংখজনক মনে হচ্ছে। যেখানে পুলিশ নিয়মিত টহল দেন এবং সবসময় নিরাপত্তাকর্মী রয়েছে। তারপরও চুরির ঘটনা ঘটেছে। নাইটগার্ডদেরও তাদের দায়িত্বে অবহেলা রয়েছে বলে মনে করছি। হয়ত তারা ঠিকমতো দায়িত্ব পালন না করে ঘুমিয়ে পড়েছিল।
থানায় এ বিষয়টি নিয়ে সাধারন ডায়েরী (জিডি) করা হয়েছে। এছাড়া সিসি টিভি ফুটেজ পুলিশকে সরবরাহ করা হয়েছে। ইতোমধ্যে তারা ভিডিওটি দেখেছেন। বিষয়টি বিশ্লেষন করে ঘটনার সাথে সংশ্লিষ্টদের আটক করবেন। এছাড়া নিরাপত্তার দায়িত্বে যারা নিয়োজিত ছিলেন তারাও যদি সম্পৃক্ত থাকেন তাদেরও ছাড় দেয়া হবে না।

ধামইরহাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শামিম হাসান সরদার বলেন, বিষয়টি নিয়ে তদন্ত চলছে। এরপর প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহন করা হবে।