ভৈরবে দেনাদারের কাছে স্বামীর পাওনা টাকা চাওয়ায় স্ত্রীকে মারধোর

0
125

মিলাদ হোসেন অপু, ভৈরব:  কিশোরগঞ্জের ভৈরবে জামালপুর গ্রামে জুতা বিক্রির পাওনা টাকা চাওয়ায় পাওনাদারকে মারধোরের অভিযোগ পাওয়া গেছে । এ ঘটনায় রিপন মিয়ার স্ত্রী রেখা বেগম (২৪)  গুরুতর আহত হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।
আজ শুক্রবার দুপুরে শিবপুর ইউনিয়নের জামালপুর গ্রামের মধ্যপাড়া হাজী জজ মিয়ার বাড়িতে এ ঘটনাটি ঘটে।
গুরুতর আহত রেখা বেগমের স্বামী রিপন মিয়া জানান, আমার ভৈরবে জুতা তৈরির কারখানা আছে । উপজেলার জামালপুর গ্রামের মো.মিস্টু মিয়ার ছেলে রাজিব মিয়া,শরীফ মিয়া, মিজান, আরিফ তারা আমার জুতার কারখানা থেকে বাকিতে জুতা কিনে অন্যত্র বিক্রি করত । তাদের কাছ থেকে জুতা বিক্রির ৫ লাখ টাকা পাওনা ছিলাম। আজ সকালে আমি  ও আমার স্ত্রীসহ পাওনা  টাকা চাইতে গেলে রাজিব ও তার ভাইদের নিয়ে স্ত্রী ও আমাকে মারধোর করে। এসময় আমার স্ত্রী রেখা বেগমকে হত্যা উদ্দেশ্যে তারা মাথা লক্ষ করে ইট দিয়ে মাথায় আঘাত করে গুরুতর আহত করে। আমাকে বাশঁ দিয়ে মারধোর করে। এসময় আমাদের চিৎকার শুনে আশেপাশে লোকজন আমাদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স হাসপাতালে নিয়ে যায়।
ভৈরব উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক জানান, গুরুতর আহত অবস্থায় হাসপাতালে নিয়ে আসলে রোগীকে তাৎক্ষনিক চিকিৎসা প্রদান করা হয়। রেখা বেগমের মাথায় ১৮ টি সেলাই করা হয়েছে।  তার অবস্থা আংশকাজনক।
ভৈরব থানা অফিসার ইনচার্জ মোখলেছুর রহমান জানান, এ ঘটনায় থানায় একটি অভিযোগ এসেছে। এ বিষয়ে বিস্তারিত জেনে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন বলে তিনি জানান।